টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

ডেথ ওভারে পরিকল্পনাহীন বোলিংয়ের জেরে CWG-তে জেতা ম্যাচ অস্ট্রেলিয়াকে উপহার দিল হরমনপ্রীতের ভারত

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: সেই ২০১৭ মহিলা ওয়ান ডে বিশ্বকাপ ফাইনালের একপ্রকার পুনরাবৃত্তি। ভারতীয় মহিলা দলের ম্যাচ ফিনিশ করতে না পারার রোগের যেন কোনও সমাধান নেই। আবারও ম্যাচের রাশ দখলে থাকলেও মোক্ষম সময়ে চোক করে গেল প্রমীলা বাহিনী। ফলস্বরূপ এজবাস্টনে কমনওয়েলথ অভিযানের শুরুটা হার দিয়েই করলেন হরমনপ্রীতরা। হতাশ ক্রিকেটপ্রেমীরা।

২০১৭ বিশ্বকাপের ফাইনালে কথা ক্রিকেটপ্রেমীদের ভুলে যাওয়ার কথা নয়। আয়োজক ইংল্যান্ডের ২২৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভালো শুরু করেও মাঝে ৩৮ রানের মধ্যে ৭ উইকেট খুঁইয়ে ১০ রানে হারতে হয়েছিল ঝুলনদের। এবারও সেই ইংল্যান্ডের মাটিতেই একই ঘটনা ঘটলো। অজিদের বিরুদ্ধে কার্যত হাতের মুঠোয় থাকা ম্যাচ অস্ট্রেলিয়াকে উপহার দিয়ে এলেন স্মৃতি মান্ধানারা।

এদিন এজবাস্টনে প্রথমে ব্যাট করে ভারতীয় দল ২০ ওভারে ১৫৪ রান তুলেছিল। অর্ধশতরান করেছিলেন অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌর (৫২)। ৩৩ বলে ৪৮ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেছিলেন অধিনায়ক শেফালী ভার্মা। উইকেটে হালকা টার্ন ছিল, আউটফিল্ডও স্লো। সবমিলিয়ে ভালো স্কোর হাতে পেয়েছিলেন ভারতীয় বোলাররা।

বল হাতে নেমেও দুরন্ত পারফরম্যান্স দেখাচ্ছিল ভারতীয় দল। রেণুকা সিংয়ের দুরন্ত বোলিংয়ে একসময় পাঁচ ওভারে ৩৮ রান তুলতে গিয়ে পাঁচ উইকেট হারিয়ে বসেছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু অ্যাস্টন গার্ডনারের ঠান্ডা মাথার হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে ওখান থেকেও ম্যাচ বার করে নিলো অস্ট্রেলিয়া। ১১০-এ সপ্তম উইকেট পড়ার পরে আর কোনও উইকেট তুলতে ব্যর্থ হয় ভারত। পারেনি রানের গতি আটকাতেও। অভিষেককারী মেঘনা সিং থেকে শুরু করে রাজেশ্বরী গায়কোয়াড, প্রত্যেকেই অকাতরে রান বিলিয়েছিলেন। এক ওভার বাকি থাকতেই তারা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যায়। ১৮ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়েও দলকে জেতাতে ব্যর্থ হন রেণুকা ঠাকুর।

Related Articles