টাইমলাইনটেক নিউজভারত

শুরু হয়ে গেল ভারতের সবথেকে বড় কর্পোরেট যুদ্ধ! মুখোমুখি হতে চলেছেন আদানি-আম্বানি

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বর্তমান সময়ে ভারতের অন্যতম দুই ধনকুবের হলেন গৌতম আদানি (Gautam Adani) এবং মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)। তবে, এবার এই দুই বিজনেস টাইকুনের মধ্যে হতে চলেছে বড় কর্পোরেট লড়াই। সাম্প্রতিক পরিস্থিতিকে বিবেচনা করে মনে করা হচ্ছে যে, এই দুই ধনকুবেরের মধ্যে এবার টেলিকম সেক্টরে কড়া টক্কর হতে পারে। এমনিতেই, বর্তমানে দেশে আর কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হতে চলেছে 5G পরিষেবা।

পাশাপাশি, টেলিকম সংস্থাগুলি তাই জোরকদমে এর প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। এমনকি, সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে 5G স্পেকট্রামের (5G Spectrum) নিলামও। গত ২৬ জুলাই থেকে সঞ্চার মন্ত্রকের (Ministry of Communications) তত্ত্বাবধানে 5G-র স্পেকট্রাম নিলামের কাজ চলছিল। এমতাবস্থায় গত ১ আগস্ট পর্যন্ত চলে স্পেকট্রাম নিলামের পালা। মোট ৪ টি টেলিকম কোম্পানি এই নিলামে অংশগ্রহণ করে। যার মধ্যে ছিল Reliance Jio, আদানি কমিউনিকেশনস, ভারতী এয়ারটেল এবং ভোডাফোন-আইডিয়া।

জানিয়ে রাখি যে, মোট ৭ দিন ধরে চলা 5G স্পেকট্রামের এই নিলামে সবাইকে পেছনে ফেলেছে Reliance Jio। এই সংস্থা প্রায় ৮৮,০৭৮ কোটি টাকার 5G স্পেকট্রাম কিনেছে। এছাড়াও, ভারতী এয়ারটেল গ্রুপ কিনেছে ৪৩,০৮৪ কোটি টাকার স্পেকট্রাম। পাশাপাশি, Vi ১৮,৭৯৯ কোটি টাকার স্পেকট্রাম কিনেছে। অপরদিকে আদানি কমিউনিকেশনস কিনেছে মাত্র ২১২ কোটি টাকার স্পেকট্রাম।

এমতাবস্থায়, আদানি গ্রুপ জানিয়েছে যে, তারা এই স্পেকট্রামটি তাদের নিজস্ব ব্যবহারের জন্য ব্যবহার করবে। অর্থাৎ, সরাসরি টেলিকম ক্ষেত্রে যোগদান করার তাদের কোনো পরিকল্পনা নেই। যদিও, বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, তারা টেলিকম সেক্টরে একটি বড় বাজি খেলার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এমনিতেই, বর্তমান সময়ে দেশের টেলিকম সেক্টরে এখন মুকেশ আম্বানির রমরমা চলছে। এমতাবস্থায়, গৌতম আদানি নতুনভাবে এই ক্ষেত্রে যুক্ত হলে কড়া টক্কর হতে পারে। পাশাপাশি, এর প্রত্যক্ষ সুবিধে পেতে পারেন গ্রাহকেরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আদানি এন্টারপ্রাইজ লিমিটেডের একটি ইউনিট হল Adani Data Networks Limited (ADNL)। যেটি মোট 20 বছরের জন্য 26 GHz মিলিমিটার ওয়েভ ব্যান্ডে 400 MHz স্পেকট্রাম ব্যবহার করার জন্য খরচ করেছে নিলামে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গ্রুপটি নিলামে বিক্রি হওয়া সমস্ত স্পেকট্রামের এক শতাংশেরও কম কিনেছে। এদিকে, ইতিমধ্যেই ডিপার্টমেন্ট অফ টেলিকমিউনিকেশন গুজরাট সার্কেলে Adani Data Networks-কে একাধিক ছাড়পত্র প্রদান করেছে।

জানিয়ে রাখি যে, ২০১০ সালে মুকেশ আম্বানিও ঠিক একইভাবে দেশের টেলিকম সেক্টরে যোগদান করেছিলেন। আর এখন দেশের সর্ববৃহৎ টেলিকম অপারেটর সংস্থা হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে Reliance Jio। ২০১৬ সালে পথচলা শুরু করেই Jio অল্প কিছুদিনের মধ্যে বিরাট জনপ্রিয়তা অর্জন করে ফেলেছে সমগ্ৰ দেশে। এদিকে, এই সমস্ত ঘটনাকে মাথায় রেখেই গৌতম আদানির টেলিকম ক্ষেত্রে পদার্পনের বিষয়টিতে আরও জোর দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Back to top button