টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

সেনার শক্তি বৃদ্ধি করতে ভারতের বন্ধু রাশিয়া বানিয়ে নিল Iron-Man স্যুট! মাথায় হাত শত্রু দেশের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ আন্তর্জাতিক মহলে ভারত (India) এবং রাশিয়ার (Russia) বন্ধুত্বের সম্পর্ক চর্চার নজির রাখে। বহুবারই এই দুই দেশের মধ্যেকার বন্ধুত্ব পূর্ণ সম্পর্কের জেরে অবাক হয়েছে গোটা বিশ্ব। যে কোন রকম পরিস্থিতি হোক বা সাহায্য সর্বদাই রাশিয়া এবং ভারত একে অপরের পাশে দাঁড়িয়েছে। বিশেষত করোনা পরিস্থিতিতে রাশিয়াই সর্বপ্রথম করোনা প্রতিষেধক প্রস্তুত করে তাক লাগিয়ে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে।

আয়রন ম্যান স্যুট
বর্তমান দিনে ভারতের এই বন্ধুদেশ রাশিয়া নিজেদের সেনাবাহিনীর ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে এক অভিনব পন্থা বের করেছে। শোনা গিয়েছে, রাশিয়ান সেনাবাহিনীর সুরক্ষার প্রয়োজনে এমন এক বডিস্যুট তৈরি করা হয়েছে, যা একাধারে বুলেট প্রুফ এবং অন্যদিকে এই পোশাক পরিহিত অবস্থায় শত্রুপক্ষ কোনভাবেই তাঁদের কোন ক্ষতি করতে পারবে না। এই শক্তিশালী পোশাককে আয়রন ম্যান স্যুট (Iron man suit) বলা হয়।

কি কি সুবিধা থাকছে এই পোশাকে?
আয়রন ম্যান স্যুট অর্থাৎ EO1-এ- হেলমেট, বডি আর্মার, কানের সুরক্ষাকবজ, প্রোটেক্টিভ গ্লাস, হাঁটু এবং কনুইয়ের সুরক্ষা কবজের পাশাপাশি থাকছে গ্রেনেড লঞ্চার, মেশিন গান, যুদ্ধের প্রয়োজনীয় চাকু, স্নিপার রাইফেলের মত শক্তিশালী অস্ত্র শস্ত্রও থাকতে পারবে।

এই আয়রন ম্যান স্যুটের আরও একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হল- যুদ্ধাকালীন পরিস্থিতি যে কোন মুহূর্তেই সৃষ্টি হতে পারে। তাই এই পোশাকে রাত এবং দিন উভয় যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে যাতে সেনারা পরিস্কারভাবে সবকিছু দেখতে পায়, সেই পরিষেবাও দেওয়া আছে।

কিভাবে তৈরি করা হয়েছে এই যুদ্ধের পোশাক?
ইন্টালিজেন্স ইঞ্জিনিয়ারিং পদ্ধতিতে এই সকল অস্ত্র শস্ত্র এবং সুরক্ষা কবজ এই পোশাকের সাথে যুক্ত করা হয়েছে। যুদ্ধকালীন সময়ে যাতে সেনাদের কাছে এই পোশাক ভারী না লাগে, সেজন্য ব্যাটারি অপারেটর প্রক্রিয়া ব্যবহার না করে স্প্রিং ব্যবহার করা হয়েছে।

ব্যবহারও শুরু হয়ে গিয়েছে
সূত্র মারফত জানা যায়, এই অতি ক্ষমতাবান যুদ্ধের পোশাক তৈরির কাজ আমেরিকা প্রথম শুরু করলেও, রাশিয়া এই বিষয়ে সর্বপ্রথম সাফল্য লাভ করেছে। শোনা গিয়েছে সিরিয়াতে রাশিয়ান সেনারা ইতিমধ্যেই এই পোশাকের ব্যবহার করতে শুরু করে দিয়েছে।

রেটনিক প্রোগ্রামের CEO আলবার্ট বেকাউ জানিয়েছেন, এই পোশাক তৈরির জন্য প্রথম পদক্ষেপ ছিল উন্নত এবং হালকা ওজনের মেটেরিয়াল খুঁজে বের করা। যাতে করে যুদ্ধকালীন সময়ে সেনাদের কোনরকম অসুবিধা না হয়। মেটেরিয়াল পাওয়া যেতেই রাশিয়ান বৈজ্ঞানিকরা অত্যন্ত দক্ষতার সাথে এই পোশাক তৈরি করেছেন।

Related Articles

Back to top button