টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারত

‘এক দেশ এক হেলথ কার্ড’ প্রকল্পের রূপকার বাঙালী ছেলে ইন্দ্রনীল, মোদীর হাত ধরে হচ্ছে বাস্তবায়ণ

Bangla Hunt Desk: ডাঃ ইন্দ্রনীল খান (Dr Indranil Khan), ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসে দেশাবসীর উদ্দ্যেশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra modi) ঘোষিত এক নতুন প্রকল্পের রূপকার বাংলার এই চিকিৎসক। ১৫ ই আগস্ট দিল্লীর লালকেল্লায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী ‘এক দেশ এক হেলথ কার্ড’ প্রকল্পের বিষয়ে জানিয়েছিলেন। অর্থাৎ প্রত্যেক ভারতবাসীর সিঙ্গেল ইউনিক হেলথ আইডি থাকবে।

কলকাতার চিকিৎসক ডাঃ ইন্দ্রনীল খান
চিকিৎসার ক্ষেত্রে মানুষের অসুবিধার কথা চিন্তা করে ডিজিটাল প্রোফাইল তৈরি করার পরিকল্পনা করেন কলকাতার চিকিৎসক ডাঃ ইন্দ্রনীল খান। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে তৎকালীন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জে পি নাড্ডাকে এই চিকিৎসা সম্পর্কিত এক নতুন পরিকল্পনার বিষয় জমা দেন ডাঃ ইন্দ্রনীল খান। দীর্ঘ ৩ বছর ১ মাস প্রতীক্ষার পর ২০২০ সালের ১৫ ই আগস্ট ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই নব প্রকল্পের ঘোষণা করলেন।

‘এক দেশ এক হেলথ কার্ড’ প্রকল্প
এই ‘এক দেশ এক হেলথ কার্ড’ প্রকল্পের মূল বিষয়- ভারতে কোন রোগীর যে কোন চিকিৎসার ক্ষেত্রে তাঁকে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্ত রকম টেস্ট বারবার করাতে হয়। যার ফলে সমস্যার সম্মুখীন হয় রোগীর পরিবার। তবে এই প্রকল্পের আয়ত্তা ভুক্ত প্রত্যেক ভারতবাসীর স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য কেন্দ্রীয় ডেটাবেসে জমা থাকবে। ব্যক্তির আধার নম্বর ও ইউজার আইডি দিয়ে যা চিকিৎসার প্রয়োজনে ব্যবহার করা হবে।

অভিভূত চিকিৎসক
নিজের স্বপ্নকে বাস্তবে রূপায়িত করতে পেরে অভিভূত চিকিৎসক জানিয়েছেন, ‘চিকিৎসা ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষকে বহুবার নানান সমস্যরা সম্মুখীন হতে দেখেছি। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে হাসপাতালের ক্লিনিক ও চিকিৎসকদের সার্ভারের সঙ্গে রোগীদের মেডিক্যাল ডেটা সংযুক্ত করা থাকবে। এই তথ্য রোগীদের প্রাপ্য পার্সোনাল ইউনিক হেলথ আইডি থেকে লগ-ইন করলেই রোগীর সমস্ত মেডিক্যাল হিস্ট্রি জানতে পারবে চিকিৎসক। এর ফলে চিকিৎসা সংক্রান্ত নথি নষ্ট বা হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না। সাধারণ মানুষ খুবই উপকৃত হবেন’।

Back to top button