টাইমলাইনবর্ধমানরাজনীতি

হাসপাতালের ভেতরেই উচ্চস্বরে মাইক বাজিয়ে অনুষ্ঠান, অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বর্ধমানের সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের (super speciality hospital) ভেতরে মাইক-বক্স লাগিয়েই চলল জলসা। সম্প্রতি বিশ্বকর্মা পুজো এবং সেই আনন্দে একটি সাংস্কৃতিক জলসার আয়োজন করা হয়েছিল বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সুপার স্পেশালিটি বিভাগ ‘অনাময়’ হাসপাতালের অভ্যন্তরেই। আর সেখানেই চলল লাউড স্পীকারে মাইক বাজিয়ে চলল গান।

অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেস (All India Trinamool Congress) পরিলিত হাসপাতালের কর্মচারী ইউনিয়নই এই গানের অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা করেছিল হাসপাতালের মধ্যে। জেলার বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি শুভম নিয়োগী এমনটাই দাবি করেছেন।

হাসপাতালেই চলল মাইক বাজিয়ে গান
বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সুপার স্পেশালিটি বিভাগ ‘অনাময়’ হাসপাতালে বিশেষত হৃদ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসা করা হয়। তবে মাঝে মধ্যে আবার পথ দুর্ঘটনায় মারাত্মক জখম ব্যক্তিদের সেখানে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়। তবে রোগীদের সুস্থ করার বদলে সেখানেই লাউড স্পীকারে গান বাজিয়ে অনুষ্ঠান করা হল। হৃদ রোগীদের ক্ষেত্রে উচ্চস্বরে আওয়াজ একেবারেই নিরাপদ নয়, সেকথাও ভুলে গেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, এমনটা অভিযোগ উঠেছে।

বিপাকে তৃণমূল
এই ঘটনায় অভিযোগের তীর শাসক দলের দিকে থাকায় কিছুটা সমস্যায় পড়ে গেছে তৃণমূল শিবির। পূর্ব বর্ধমান জেলাপরিষদের সহ-সভাধীপতি অর্থাৎ তৃণমূলের রাজ্যের মুখপাত্র দেবু টুডু এবিষয়ে বলেছেন, ‘এই ধরণের ঘটনাকে দল কখনই সমর্থন করছে না। এই ধরনের কাজ যারা করেছেন, একেবারেই ঠিক করেননি’।

প্রতিবাদে নামবে বিজেপি
হাসপাতালে তৃণমূল সদস্যদের এহেন আচরণের পরিপ্রেক্ষিতে জেলার বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি শুভম নিয়োগী জানিয়েছেন, ‘হাসপাতালের এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল পরিচালিত কর্মচারী ইউনিয়নের লোকজন জড়িত। আমরা চাই সঠিক তদন্ত করে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হোক। যদি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দিতে না পারে, তাহলে বিজেপি বৃহত্তর আন্দোলনে সামিল হবে’।

Back to top button