টাইমলাইনক্রিকেট

ধুতি-কুর্তা পরে মাঠে নামল খেলোয়াড়রা, সংস্কৃত ভাষায় চলল ধারাভাষ্য! দেখেছেন এমন ক্রিকেট ম্যাচ?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ভারতীয়রা যে ক্রিকেটকে অন্য যেকোনও খেলার থেকে অনেক বেশি ভালোবাসে, সেটা কারও অজানা নেই। কিন্তু আপনি কি কখনো ধুতি কুর্তায় কাউকে ক্রিকেট খেলতে দেখেছেন? হ্যাঁ, মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপালে আজকাল ট্র্যাকস্যুট-টিশার্ট পরে না, ধুতি-কুর্তায় ক্রিকেট খেলা হচ্ছে। এর সাথে সাথে ম্যাচে খেলার সময় কমেন্ট্রি হিন্দি-ইংরেজিতে না, সংস্কৃত ভাষায় করা হচ্ছে।

জানিয়ে রাখি, গতকাল রবিবার ভোপালে এক অভূতপূর্ব ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। এই প্রতিযোগিতায় পেশাদার খেলোয়াড়দের বদলে পুরোহিতরা ব্যাট-বল নিয়ে মাঠে নামেন। এই বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় সবার উৎসাহ দেখার মতো ছিল। খেলোয়াড়রা নিজেদের মধ্যেও সংস্কৃতে কথা বলে।

খেলোয়াড়রা মাঠে নামার সময় এক অন্য দৃশ্য দেখা যায়। তাঁদের মাথায় টীকা, গলায় রুদ্রাক্ষের মালা দেখে যেকেউ বলবে এই পুরোহিতরা কোনও জজ্ঞের প্রস্তুতি নিচ্ছে। কিন্তু তাঁদের এই প্রস্তুতি পুজো অথবা জজ্ঞ করার জন্য ছিল না। তাঁরা পণ্ডিত বেশেই ক্রিকেট খেলতে নামে। এমনকি ম্যাচের ধারাভাষ্য হিন্দি-ইংরেজিতে না হয়ে সংস্কৃত ভাষায় হয়।

এই বিষয়ে সংস্কৃত বাঁচাও মঞ্চের নেতা চন্দ্রশেখর তিওয়ারি জানান, সংস্কৃত ভাষার প্রতি মানুশকে সচেতন করতে এই ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজন করা হয়েছিল। এই খেলায় ভোপালের অনেক ব্রাহ্মণ, পুরোহিত ধুতি-কুর্তা পরে খেলতে নেমেছে। উল্লেখ্য, ম্যাচে পণ্ডিতরা পেশাদার খেলোয়াড়দের মতই চার-ছয় মারেন।

Back to top button