টাইমলাইনটাকা পয়সাভারত

মাত্র ৮ টাকা বিনিয়োগেই পাবেন ১৭ লক্ষ! গ্রাহকদের জন্য দারুণ স্কিম LIC-র

বাংলা হান্ট ডেস্ক: কিছু কিছু মানুষ থাকেন যাঁরা প্রথম থেকেই চাকরির প্রতি আকৃষ্ট হন আবার কেউ কেউ থাকেন যাঁরা ব্যবসার মাধ্যমেই নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করে ফেলেন। তবে, উভয় ক্ষেত্রেই ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে ভালো জায়গায় বিনিয়োগ করা উচিত সকলের। যদিও, বর্তমান সময়ে বাজারে একাধিক বিনিয়োগের বিকল্প উপলব্ধ থাকলেও সেগুলিতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে একটা ঝুঁকির আশঙ্কাও থেকে যায়। এমতাবস্থায়, সকলেই চান একটি ভরসাযোগ্য জায়গায় বিনিয়োগ করতে।

আর সেই তালিকায় এক্কেবারে প্রথমে যে নামটি আসে তা হল LIC। বছরের পর বছর ধরে গ্রাহকদের বিশ্বাসের সাথে পরিষেবা দিয়ে আসছে এই সংস্থা। এমনকি, যুগের সাথে তাল মিলিয়ে এবং গ্রাহকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে একাধিক নিত্য-নতুন স্কিম নিয়ে আসে এই সংস্থাটি। বর্তমান প্রতিবেদনেও ঠিক সেইরকমই এক স্কিমের প্রসঙ্গ উপস্থাপিত করা হল। যেখানে আপনি স্বল্প পরিমান বিনিয়োগের মাধ্যমেও ভালো রকম লাভ পেতে পারেন।

মূলত, এই স্কিমটির নাম হল জীবন লাভ পলিসি (LIC Jeevan Labh Policy)। LIC-এর এই পলিসির বিশেষত্ব হল, এই নন-লিঙ্কড প্ল্যানটি LIC-র ৯৩৬ স্কিমের অন্তর্গত কিন্তু এটি স্টকের উপর নির্ভর করে না। তাই এই প্ল্যানটি অত্যন্ত নিরাপদ। পাশাপাশি, আপনি এই স্কিমে বিনিয়োগ করে ভাল রিটার্নও পাবেন।

এছাড়াও, সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল জীবন লাভ পলিসি গ্রহণ করলে, আপনাকে বেশি অঙ্কের প্রিমিয়ামও জমা দিতে হবে না। বরং, এই স্কিমে আপনাকে প্রতিদিন মাত্র ৮ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। অর্থাৎ প্রতি মাসে ২৩৩ টাকা। কিন্তু, এই স্বল্প পরিমানে বিনিয়োগ করলেও আপনি ম্যাচুরিটির পরে ১৭ লক্ষ টাকা পাবেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, জীবন লাভ পলিসির মেয়াদ হল ১৬ বছর থেকে ২৫ বছর পর্যন্ত। পাশাপাশি, এই স্কিমে বিনিয়োগের সর্বনিম্ন বয়স হল ৮ বছর থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৫৯ বছর পর্যন্ত। এদিকে, যদি পলিসি গ্রহণকারী এই স্কিমের মাঝপথে মারা যান, সেক্ষেত্রে পলিসির সুবিধা নমিনিকে দেওয়া হয়। একই সঙ্গে তাঁকে বোনাস ও অ্যাসিওর্ডের সুবিধাও দেওয়া হয়।

এদিকে, LIC অনুসারে, কেউ যদি ২১ বছরের জন্য একটি মেয়াদ বেছে নিতে চান, তাহলে সেক্ষেত্রে পলিসি নেওয়ার সময় তাঁর বয়স ৫৪ বছরের কম হওয়া উচিত নয়। এছাড়াও, আপনি যদি ২৫ বছরের জন্য পলিসি নেন, তাহলে সেক্ষেত্রে বয়স ৫০ বছরের কম হলে চলবেনা।

Related Articles

Back to top button