টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

ব্যাপক অপমানিত হলেন জিনপিং সরকার, ভরা সভায় চীনের মুখোশ খুলে দিলেন জাপানের বিদেশমন্ত্রী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভারতের সঙ্গে সীমা বিবাদ করেই ক্ষান্ত নেই জমি মাফিয়া চীন (China)। বৈঠকের পরও সীমান্ত এলাকা থেকে পেছোবার কোন নামই নিচ্ছে না জিনপিং-এর সেনাবাহিনী। একদিকে ভারতের সঙ্গে ঝামেলা জিয়িয়ে রেখে অন্যদিকে জাপানকেও (Japna) নিজেদের আসল রূপ দেখাতে শুরু করে দিয়েছে চীন।

চীনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখায় জাপান
জাপানের সঙ্গে করা চীনের জারিজুরির উপর থেকে এবার পর্দা সরতে চলেছে। চীনের বিদেশমন্ত্রী বর্তমান সময়ে জাপান সফরে রয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে দক্ষিণ চীন সাগরের বিতর্কীত দ্বীপের উপর চীনের অবৈধ প্রবেশ এবং চীনের অবাঞ্ছিত প্রবেশের বিষয়ে বিক্ষোভ দেখায় জাপান। ঠিক যে সময়ে চীনের জাহাজ জাপানের জলসীমায় প্রবেশ করেছিল, সেই সময় থেকেই শুরু হয় বিক্ষোভ প্রদর্শন।

চীনের বিরুদ্ধে সোচ্চার জাপান
দুই দিবসীয় সফরে বর্তমানে টোকিওতে রয়েছেন চীনের বিদেশমন্ত্রী। তাঁর সঙ্গে সাক্ষাতের পর জাপানের মুখ্য ক্যাবিনেট সচিব সাংবাদিকদের সম্মুখে চীনের বিস্তারবাদী নীতির বিরুদ্ধাচারণ করে বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি খুবই গম্ভীর রূপ ধারণ করেছে।

চীন নিজের জায়গা থেকে অনড়। ঠিক যেভাবে ভারতের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যায় লিপ্ত রয়েছে, ঠিক সেভাবেই জাপানের সঙ্গেও সংঘর্ষে জড়িয়েছে চীন। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, LAC তে ভারত যেভাবে চীনকে ঝটকা দিয়েছিল, জাপানের থেকেও সেভাবে ঝটকা খাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে চীন।

সীমান্ত দ্বীপ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বিবাদ
প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, জাপানের নিয়ন্ত্রণ রেখায় দক্ষিণ চীন সাগরের দ্বীপ নিয়েই চীন এবং জাপানের মধ্যে এই সমস্যা তৈরি হয়েছে। যে দ্বীপকে জাপান সেনকাকু বললেও, চীন বলে দিয়াওউ। জাপানের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করেও, চীনের যুদ্ধ জাহাজ ওই অংশে নিজেদের গতিবিধি বাড়িয়ে তুলেছে।

চীনের বিদেশমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, জাপানের সঙ্গে চীনের একটি শান্তিপূর্ণ সম্পর্কের পরিণতি প্রয়োজন। যা ওই সীমান্ত এলাকায় ঐতিহাসিক নজির রাখবে। অন্যদিকে জাপানের বিদেশমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, দ্বীপের আশেপাশে কোন সমস্যা বাড়তে দেওয়া যাবে না। কিন্তু তারপরও চীন সীমান্ত এলাকার দ্বীপ নিজের হস্তগত করতে অবৈধ প্রবেশ জারি রেখেছে।

Back to top button