টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

ভারত দেশে এসে আমি খুশি, এই মহান দেশের বৈচিত্র্যকে আমি সন্মান করি: জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মার্কেল

ভারতবর্ষ বিশ্বের জন্য পুন্যভূমি তথা বিচিত্রতায় পরিপূর্ণ। ত্যাগ ও তপস্যার এই ভূমিতে বীরেদের জন্ম হয়। এই কারণে এই ভূমির উপর বিদেশী শক্তির নজর যুগের পর যুগ ধরে রয়ে গেছে। কিন্তু ভারতের বীরেরা জননীর প্রানের বলিদান দিয়ে ভারত ভূমির রক্ষা করেছে। পুরো বিশ্ব যখন কুসংস্কারের আচ্ছন্ন ছিল তখন ভারতের ঋষি মুনিরা গণিত, বিজ্ঞান, মহাকাশ বিজ্ঞানের জ্ঞান দিয়ে গেছেন। তবে আজকের দিনে দাঁড়িয়ে বিদেশিরা ভারতের সম্পর্কে যা জানে, ভারতীয়রা নিজেদের ইতিহাস সম্পর্কে সেটা জানে না।

এই কারণে ভারতীয় জাতি দিন দিন দুর্বল হচ্ছে। শুক্রবার রাষ্ট্রপতি ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাগত জানানো হয়েছিল ভারত সফরে আসা জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেলকে। এই উপলক্ষে মার্কেল বলেছিলেন, “ভারতে এসে আমি আনন্দিত, আমরা এই মহান দেশ এবং এর বৈচিত্র্যকে সম্মান করি।”

 

জার্মানির চ্যান্সেলর বলেছিলেন, ‘ভারতে এসে আমি খুশি। জার্মানি ও ভারতের মধ্যে খুব গভীর সম্পর্ক রয়েছে। আমরা এই বিশাল দেশ এবং এর বিভিন্নতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। মার্কেল গত রাতে দিল্লিতে পৌঁছেছিলেন। জানিয়ে দি, জার্মানি এমন এক দেশ যারা ভারতের ভাষা ও সংস্কৃতিকে নিজের দেশে লাগু করেছে। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে ভারতীয়রা সংস্কৃতি ভাষা ভুলতে শুরু করেছে অন্যদিকে জার্মানিতে সংস্কৃতি ভাষার প্রচুর কলেজ খোলা হয়েছে। জার্মানিতে মূলত ভারতের বৈদিক শিক্ষার আদলে শিক্ষা প্রদানের উপর জোর দেওয়া হয়। অন্যদিকে ভারতে ইংরেজদের লাগু করা শিক্ষা এখনও চলছে।

 

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেলও রাজঘাটে গিয়ে মোহন দাস গান্ধীকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন। জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেল পঞ্চম দ্বিবার্ষিক আন্তঃসরকারী সংলাপ (আইজিসি) এর জন্য ভারতে এসেছেন। আইজিসির অধীনে উভয় দেশের সমতুল্য মন্ত্রীরা তাদের নিজ নিজ দায়িত্বের ক্ষেত্র সম্পর্কে আলোচনা করেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং চ্যান্সেলর মের্কেলের সহ-সভাপতিত্বে আলোচনার ফলাফল সম্পর্কে আইজিসিকে সচেতন করা হয়েছে।

Back to top button