টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিশেষ

স্কুলে প্রধান শিক্ষকের ‘নো এন্ট্রি’, স্কুলের গেটে সশস্ত্র পুলিশ বসালেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়

বাংলাহান্ট ডেস্ক : দীর্ঘদিন ধরেই এক শিক্ষকের বেতন আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছিল স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। সেই মামলায় এবার অভিযোগকারী শিক্ষকের পক্ষে নজিরবিহীন রায় দিয়ে হৈচৈ ফেললেন হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

উত্তর ২৪ পরগনার শাসনের গোলাবাড়ি পল্লিমঙ্গল বিদ্যামন্দিরের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ওই স্কুলেরই এক শিক্ষকের বেতন দুই বছর যাবৎ আটকে রাখার অভিযোগ ওঠে। সেই অভিযোগ নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন ওই শিক্ষক। এই মামলায় এবার চূড়ান্ত রায় দিল হাইকোর্ট। শুক্রবার চূড়ান্ত শুনানিতে কার্যতই বেনজির রায় শোনালেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিনের রায়ে বিচারপতি জানান, যে আগামী ১০ জুন পর্যন্ত স্কুলের মধ্যে কোনও মতেই ঢুকতে পারবেন না ওই প্রধান শিক্ষক। অভিযুক্ত যাতে কোনও ভাবেই স্কুলে ঢুকতে না পারেন সেই কারণে স্কুলটির গেটে আগামী ১০ তারিখ অবধি দুজন সশস্ত্র পুলিশ কর্মী মোতায়েনের কথাও বলেন তিনি। এই মর্মে উত্তর ২৪ পরগনার পুলিশ সুপারকেই নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

বিচারপতির এহেন রায়ে কার্যতই হইচই শুরু হয়ে যায় আদালতে। এই ধরনের মামলায় এই ধরনের রায়ের নজির সাম্প্রতিক অতীতে এই প্রথম। যদিও অভিযোগকারীদের ন্যায় বিচার প্রদান করার জন্যই খ্যাত অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। কিছুদিন আগেই এক বৃদ্ধা শিক্ষিকার ২৫ বছর ধরে আটকে থাকা বেতনও এরিয়ার সমেত শিক্ষা দপ্তরকে ফিরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে মানবিকতার নজির গড়েছিলেন তিনি। সেখানেও মূল অভিযোগ ছিল স্কুলের বিরুদ্ধেই। বিচারপতির এই রায়ে ৩৬ বছরের লড়াইয়ের নিরসন ঘটে ওই বৃদ্ধার।

Related Articles

Back to top button