টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

টিকটকের পক্ষ নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধাচারণ করতে পারব না, সাফ জানিয়ে দিলেন আইনজীবী মুকুল রোহাতগি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটককেও (Tiktok) ব্যান করেছে ভারত সরকার। বর্তমানে প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহাতগিও (Mukul Rohatgi) টিকটক নিয়ে করলেন এক বিস্ময়কর মন্তব্য। ভারত চীনের সীমা বিবাদের জেরে ভারত সরকার ৫৯ টি চীনা অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। যার মধ্যে ভারতের জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা এই অ্যাপও বাদ গেল না।

টিকটকের বর্তমান অবস্থান কোথায়?
ভারত চীন সীমান্তে সীমা বিবাদ এবং তাঁর পরবর্তীতে চীনকে কিছুটা হলেও শায়েস্তা করতে মাঠে নেমেছে মোদী সরকার। ভারতে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হল ৫৯ টি চীনা অ্যাপ। যার মধ্যে রয়েছে টিকটকও। মঙ্গলবার এমনকি ভারতের গুগল প্লে স্টোর থেকে সরিয়েও দেওয়া হল এই টিকটক। এবার থেকে কোন ভারতীয় নাগরিক নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেওয়া অবধি এই অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারবেন না। পাশাপাশি পুরনো টিকটক ব্যবহারকারীরাও আর এটি ব্যবহার করতে পারবেন না।

টিকটক ছাড়াও বহু অ্যাপ নিষিদ্ধ
ভারতে টিকটকের প্রধান কর্মকর্তা নিখিল গান্ধী জানিয়েছেন, টিকটক ব্যবহারকারীদের সমস্ত তথ্য সম্পূর্ণ গোপনীয়তার সাথে রাখা হয়। এই তথ্য কোন বিদেশী সংস্থাকে বা চীন সরকারকে দেওয়া হয় না। শুধুমাত্র টিকটক নয়, এটি ছাড়াও আরও ৫৮ টি অ্যাপের মধ্যে রয়েছে ইউসি নিউজ, সিএম ব্রাউজার, ফাইল শেয়ারিং পরিষেবা শেয়ারিট, শপিং অ্যাপ্লিকেশন শিন, জনপ্রিয় মোবাইল গেম ক্লাশ অফ কিংস সহ আরও বেশ কিছু অ্যাপ।

কি বললেন মুকুল রোহাতগি?
বর্তমানে এই সুপ্রিম কোর্টে কোনরকম মামলায় টিকটকের হয়ে সওয়াল করতে নারাজ প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহাতগিও। টিকটকের পক্ষ নিয়ে চীনা সংস্থার হয়ে সুপ্রিম কোর্টে ভারত সরকারের বিরুদ্ধাচারণ করতে পারবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিলেন। সেই সঙ্গে আরও বললেন, তিনি ভারত সরকারের সঙ্গে সম্পূর্ণ একমত। এই বিষয়ে তিনি চীনা সংস্থার প্রতিনিধি রূপে কোর্টে হাজিরা দেবেন না।

Related Articles