fbpx
টাইমলাইনভারত

ফেসবুকে হিন্দু বেশে ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলে কমলেশের সাথে ঘনিষ্ঠতা বাড়িয়েছিল আশফাক!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ হিন্দু সমাজ পার্টির (Hindu Samaj Party) রাষ্ট্রীয় সভাপতি কমলেশ তিওয়ারী (Kamlesh Tiwari) হত্যাকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এলো। উত্তর প্রদেশ পুলিশ এই হত্যাকাণ্ডের পর্দাফাঁস আগেই করে দিয়েছে। এবার এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত অন্যান্যদের খোঁজ এবং শুটারের গ্রেফতারি নিয়ে যায়গায় যায়গায় তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছে। এরই মধ্যে গুজরাট পুলিশ কমলেশ হত্যাকাণ্ড নিয়ে নয়া তথ্য সামনে আনল।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, গুজরাট পুলিশের জঙ্গি দমন শাখা (ATS) এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত তিনজনকে আগেই গ্রেফতার করে নিয়েছে। এবার ATS আরেকটি চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এনেছে। ATS অনুযায়ী, হত্যার সাথে যুক্ত আশফাক ফেসবুকে রোহিত সোলাঙ্কি নাম নিয়ে হিন্দু সমাজ পার্টির সভাপতি কমলেশ তিওয়ারীর সাথে চ্যাট করত।

বিশেষজ্ঞদের মতে, গুজরাট ATS এর এই চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আনার পর এটা পরিস্কার হয়ে গেছে যে, কমলেশ তিওয়ারীর হত্যা পরিকল্পনা মাফিক ছিল। খুনিরা প্রথমে কমলেশ তিওয়ারীর সাথে ঘনিষ্ঠতা করে, এরপর সুযোগ বুঝে ওনাকে খুন করে দেয়। আর এই খুনের জন্য খুনিরা কমলেশ তিওয়ারীর সাথে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপে ঘনিষ্ঠতা বাড়ানো শুরু করে। এরপর কমলেশ তিওয়ারীকে জালে ফাঁসিয়ে টাইমিং আর বাড়ির ঠিকানা জেনে নেয় তাঁরা।

পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, উত্তর প্রদেশ পুলিশ শুটারকে গ্রেফতার করার জন্য বেশ কয়েকটি টিম বানিয়ে আলাদা আলাদা যায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছে। উত্তর প্রদেশ পুলিশের একটি টিম গুজরাটেও গেছে, ওই টিমকে লখনউ এর এসপি ক্রাইম নেতৃত্ব দিচ্ছে।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, হিন্দু সমাজ পার্টির প্রাক্তন সভাপতি কমলেশ তিওয়ারির হত্যা দুদিন আগে লখনউতে হয়েছে। উত্তর প্রদেশ পুলিশ রবিবার এই হত্যাকাণ্ডে একটি বড়সড় সফলতা অর্জন করে। লখনউ পুলিশ রবিবার নাকা এলাকার একটি হোটেল থেকে অভিযুক্তের রক্তে রাঙা একটি জামা উদ্ধার করেছে। ওই জামাকে ফরেন্সিক ল্যাবে তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Close
Close