টাইমলাইনবিনোদন

জীবনের সেই বিশেষ পুরুষের প্রতি কৃতজ্ঞ, ‘থালাইভি’র ট্রেলার লঞ্চ অনুষ্ঠানে কেঁদে ভাসালেন কঙ্গনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে প্রকাশ‍্যে এল কঙ্গনা রানাওয়াত (kangana ranawat) অভিনীত ‘থালাইভি’ (thalaivi) ছবির ট্রেলার (trailer)। দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির অন‍্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী তথা তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ‍্যমন্ত্রী ও এআইএডিএমকের সর্বেসর্বা জয়ললিতার জীবনকাহিনি তুলে ধরা হয়েছে এই ছবিতে। জয়ললিতার চরিত্রে অভিনয় করেছেন কঙ্গনা।

কঙ্গনার ৩৪ তম জন্মদিন উপলক্ষে প্রকাশ‍্যে আসে থালাইভির ট্রেলার। এদিন ট্রেলার লঞ্চ অনুষ্ঠানে একেবারে অন‍্য রকম রূপে দেখা মেলে কঙ্গনার। সোশ‍্যাল মিডিয়া বা বাস্তব, চিরদিন সকলে তাঁকে ঠোঁটকাটা, বোল্ড অবতারেই দেখে এসেছে। কিন্তু এদিন ট্রেলার লঞ্চ অনুষ্ঠানে আবেগাপ্লুত হয়ে কেঁদে ভাসালেন কঙ্গনা।


কিন্তু অভিনেত্রীর কান্নার পেছনে কারণটা কি? আসলে এক বিশেষ মানুষের জন‍্যই তাঁর চোখের জল আর বাঁধ মানেনি। আর সেই বিশেষ মানুষটি হলেন থালাইভি ছবির পরিচারক এ এল বিজয়। অভিনেত্রীর কথায়, এমন কোনো পুরুষের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়নি যে কিনা তাঁর প্রতিভা নিয়ে তাঁকে অপরাধবোধে ভুগতে বাধ‍্য করেনি।

কিন্তু এক্ষেত্রে একমাত্র ব‍্যতিক্রম পরিচালক বিজয়। ট্রেলার লঞ্চ অনুষ্ঠানে বিজয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠেন কঙ্গনা। আবেগঘন হয়ে তিনি বলেন, বিজয়ই একমাত্র পুরুষ যিনি নিজের প্রতিভা সম্পর্কে গর্ববোধ করিয়েছেন কঙ্গনাকে। এই পুরুষ সর্বস্ব ইন্ডাস্ট্রিতে যেখানে অভিনেতাদের বিশেষ নজর দেওয়া হয়, সেখানে বিজয় শিখিয়েছেন কিভাবে সব অভিনেতাদের সমান চোখে দেখতে হয়।

ট্রেলার লঞ্চ অনুষ্ঠানে নিজের বক্তব‍্য রাখার ভিডিওটি টুইট করে কঙ্গনা লেখেন, ‘আমি নিজেকে বব্বর শেরনি বলি কারণ আমি কখনো কাঁদি না। কাউকে আমাকে কাঁদানোর সুযোগটাও দিই না। আমার মনে নেই শেষ আমি কবে কেঁদেছি কিন্তু আজ আমি অনেক কেঁদেছি আর এটা একটা দারুন অনুভূতি।’

প্রসঙ্গত, লকডাউনের আগে থেকেই চলছিল থালাইভির শুটিং। কিন্তু হঠাৎ লকডাউন শুরু হয়ে যাওয়ায় বন্ধ রাখতে হয় শুটি‌ং। লকডাউন ওঠার পর ফের জোর কদমে শুরু হয়ে যায় ছবির কাজ‍। এর আগেও বহুবার নিজের টুইটে পরিচালক বিজয়ের প্রশংসা করতে দেখা গিয়েছে কঙ্গনাকে। আগামী ২৩ এপ্রিল মুক্তি পাবে থালাইভি। কঙ্গনা ছাড়াও ছবিতে রয়েছেন যিশু সেনগুপ্ত, প্রকাশ রাজ, অরবিন্দ স্বামী।

Back to top button