টাইমলাইনবিনোদন

গোটা বিশ্বকে বদলে দিয়েছেন, নরেন্দ্র মোদী অবতার! স্বাধীনতা দিবসে গদগদ কঙ্গনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: তাঁর বিরুদ্ধে বরাবরের অভিযোগ, তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের সমর্থক। বিরোধী রাজনৈতিক দল থেকে শুরু করে অভিনেতা অভিনেত্রীরা কাউকে ছেড়ে কথা বলেন না। এহেন কঙ্গনা রানাওয়াত (Kangana Ranaut) শারীরিক অসুস্থতার জন‍্য স্বাধীনতা দিবস পালন করবেন না তা কী হতে পারে?

ডেঙ্গুতে পরিস্থিতি বেশ খারাপ। হাতে ঢুকেছে স‍্যালাইনের চ‍্যানেল। তার মধ‍্যেও সেজেগুজে হাতে জাতীয় পতাকা নিয়ে ‘হর ঘর তিরঙ্গা’ ক‍্যাম্পেনে অংশ নিয়েছেন অভিনেত্রী। কারোর সামনে মাথা নত করেন না ‘কুইন’। তাঁর সঙ্গে ‘পাঙ্গা’ নিয়ে পারেনি ডেঙ্গুও।


বাড়িতে বসেই স্বাধীনতা দিবস পালন করেছেন কঙ্গনা। সাদা সালোয়ার কামিজের সঙ্গে তেরঙা ওড়না পরে হাতে জাতীয় পতাকা নিয়ে হাসিমুখে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। সবাইকে জানিয়েছেন স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা।

দ্বিতীয় ছবিতে তাঁর হাতে দেখা গিয়েছে স‍্যালাইনের চ‍্যানেল। বিছানায় শুয়ে ছবিটি তুলেছেন কঙ্গনা। সঙ্গে লিখেছেন, ‘নিজের ঘর থেকে বেরোতে পারছি না। কিন্তু জাতীয় উদযাপনের উদ‍্যম আমার মনে জাঁকিয়ে বসেছে। আমার বাড়ির কর্মচারীরা, নার্স, মালি সকলে একে অপরকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বক্তৃতা শুনেছি সকালে।’

কঙ্গনা আরো লিখেছেন, ‘কথায় বলে, একটা মানুষ গোটা বিশ্বকে বদলে দিতে পারে। একথা আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজির ক্ষেত্রে একেবারে সত‍্য। আমার জীবনে কখনো জাতীয়তাবাদের এত উদ্দীপনা, কর্তব‍্য আর ইতিবাচকতা দেখিনি মানুষের মনে। হয়তো এই বিশাল চেতনাকেই আমরা অবতার বলি। যাদের শুধু নিজেদের উত্থান হয় না, বরং গোটা মনুষ‍্যত্বকে উজ্জীবিত করেন। জয় হিন্দ!’

সপ্তাহ খানেক আগেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানিয়েছিলেন কঙ্গনা। তার মধ‍্যেও নিজের ছবির সেটে ছুটেছিলেন তিনি। গায়ে ধুম জ্বর নিয়েই ‘এমার্জেন্সি’র শুটিং সারতে দেখা গিয়েছিল তাঁকের। কঙ্গনা লিখেছিলেন, শরীর অসুস্থ হতে পারে, কিন্তু মনের উদ‍্যম নয়।

Related Articles