টাইমলাইনবিনোদন

অমিতাভের পরেই নাকি তাঁর স্থান, ফের টুইট বিতর্কে নেটজনতার রোষের মুখে কঙ্গনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কঙ্গনা রানাওয়াত (amitabh bachchan) ও বিতর্ক (controversy) হাত ধরাধরি করে চলে, এমনটা বললে সম্ভবত খুব একটা ভুল বলা হয় না। কোনো না কারণে বিতর্কের সৃষ্টি তিনি করেনই, একথা কারোর অজানা নয়। এবার খোদ অমিতাভ বচ্চনের (amitabh bachchan) সঙ্গে নিজের তুলনা টেনে সোশ‍্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন কঙ্গনা।

কিন্তু এসবের শুরু কোথায়? সোশ‍্যাল মিডিয়ায় তাপসী পান্নুর করা এক সাম্প্রতিক ছবিতে কঙ্গনার এক অনুরাগী মন্তব‍্য করেন, তাপসী নাকি কঙ্গনাকে নকল করেছেন। সেই পোস্টই শেয়ার করে তাপসীর নাম না নিয়ে অভিনেত্রী লেখেন, ‘ও আমার প্রকৃত ভক্ত। ও আমাকে মনপ্রাণ দিয়ে নকল করে।’

kangana ranaut richest person by the age of 50 main Bangla Hunt Bengali News
এখানেই শেষ নয়, কঙ্গনা আরো বলেন, অমিতাভকে সবথেকে বেশি নকল করা হয়। মহিলা হিসাবে তারপরেই তাঁর নিজের স্থান। এতেই চটে যায় বিগ বি অনুরাগীরা। অহঙ্কার করতে গিয়ে দিগ্বিদিক জ্ঞান হারিয়েছেন কঙ্গনা। এমনটাই অভিযোগ ওঠে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। তবে পালটা কোনো মন্তব‍্য করেননি অভিনেত্রী।

AMITABHBACHCHAN Bangla Hunt Bengali News
প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কৃষক আন্দোলন ইস‍্যুতে ফের বিপাকে পড়েন কঙ্গনা রানাওয়াত। কৃষক আন্দোলনের মিছিলে পাঞ্জাবের বৃদ্ধা মহিন্দর কউরকে শাহিনবাগের দাদি বিলকিস বানো বলে ভুল করে তীর্যক টুইট করেছিলেন কঙ্গনা। সেই টুইটের পরিপ্রেক্ষিতেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেছেন মহিন্দর কউর।

পাঞ্জাবের এক আদালতে কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মহিন্দর। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৯ ও ৫০০ ধারায় দায়ের হয়েছে মামলা। আগামী ১১ জানুয়ারি ধার্য হয়েছে মামলার শুনানির তারিখ।

প্রসঙ্গত, কৃষক আন্দোলনের একটি ছবি ভাইরাল হয়েছিল সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। সেখানে এক বৃদ্ধা মহিলাকেও আন্দোলনে পা মেলাতে দেখা যায়। সেই ছবি টুইট করে কঙ্গনা লেখেন, এই সেই শাহিন বাগের বিলকিস দাদি। ১০০ টাকার বিনিময়ে কৃষক আন্দোলেও যোগ দিয়েছেন তিনি।

তাঁর এই টুইট ঘিরে তুমুল বিতর্ক শুরু হতে বাধ‍্য হয়ে টুইট মুছেও ফেলেন কঙ্গনা। কিন্তু এত মারাত্মক ভুল করেও ক্ষমা চাননি অভিনেত্রী, এমনটাই বক্তব‍্য মহিন্দর কউরের। তাঁর অভিযোগ, কঙ্গনার মন্তব‍্যের জন‍্য সকলের কাছে তাঁর ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে।

আগেও কঙ্গনার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠতে দেখা গিয়েছিল বৃদ্ধাকে। তিনি সপাটে মন্তব‍্য করেছিলেন, এই বয়সেও নিজে ফসল ফলান তিনি। ১০০ টাকার কোনো দরকার নেই তাঁর। তবে কঙ্গনা দাবি করেছিলেন, এই মহিন্দর কউরকে নাকি তিনি চেনেনই না।

Back to top button