টাইমলাইনবিনোদন

পরপর কন‍্যাসন্তান চাননি মা বাবা, তাঁর জন্মের পর সবাই অখুশি হয়েছিলেন! বিষ্ফোরক কঙ্গনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কঙ্গনা রানাওয়াতের (kangana ranawat) জন্মের পর একেবারেই খুশি হননি তাঁর বাবা মা। নিজের জন্মমাসে এমনি বিষ্ফোরক দাবি করলেন অভিনেত্রী। দিদি রঙ্গোলি চান্দেলের জন্মের প‍র ফের কন‍্যাসন্তানের জন্ম হওয়ায় বেশ হতাশ হয়েছিলেন তাঁর বাবা মা, এমনটাই জানান কঙ্গনা।

নিজের ছোট বেলার ছবি পোস্ট করে অভিনেত্রী লেখেন, ‘আমার জন্মমাস, বড় হতে হতে ঠাকুমাদের মুখে শুনেছি একজন মেয়ের পর আবার এক কন‍্যাসন্তানের জন্ম হওয়ায় সবাই হতাশ হয়েছিলেন। কিন্তু কেউ অতটা মনে করেননি কারণ আমাকে দেখতে খুব সুন্দর ছিল ও আমাকে বিয়ে দেওয়া নিয়ে সমস‍্যা হত না। ওঁরা সবাই হাসত কিন্তু আমার মন প্রতিবারে ভেঙে যেত।’


কঙ্গনা আরো লেখেন, ইতিহাস সাক্ষী রয়েছে যে ব‍্যতিক্রমী মানুষরাই অসাধ‍্য সাধন করেছে তাদের পরিবার বা সমাজ প্রত‍্যাখ‍্যান করেছে। তাই বাধা বিপত্তি সবই অর্থবহ।

সম্প্রতি নব নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে ‘কমিউনিস্ট’ বলায় কঙ্গনার বিরুদ্ধে তোপ দাগেন এক মার্কিন লেখক। অভিনেত্রীকে ‘বোকা’ ও ‘অশিক্ষিত‘ বলেও কটাক্ষ করেন তিনি। অপরদিকে চুপ করে থাকার পাত্রী নন কঙ্গনা। তিনি পালটা জবাব দেন, তাঁর টুইট উচ্চ বুদ্ধি সম্পন্ন মানুষদের জন‍্যই। বোকারা তা বুঝতে পারে না। আর তাঁর হাতেও অত সময় নেই যে তিনি বসে বসে সব বোকাদের নিজের টুইট বোঝাবেন।

কিছুদিন আগে দিল্লিতে রিঙ্কু শর্মা হত‍্যার প্রসঙ্গ তুলে কেজরিওয়ালকে কটাক্ষ করেন অভিনেত্রী। দিল্লির মুখ‍্যমন্ত্রীর ২০১৫ সালের একটি পুরনো টুইট রিটুইট করে তোপ দেগেছেন কঙ্গনা। সেই টুইটে কেজরিওয়াল লিখেছিলেন গণপ্রহারে মৃত ইখলাক খানের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে দাদরি যাচ্ছেন তিনি।

সেই টুইট রিটুইট করে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘অরবিন্দ কেজরিওয়াল জি, আশা করি আপনি রিঙ্কু শর্মার পরিবারের সঙ্গেও দেখা করবেন ও তাদের সাহায‍্য করবেন। আপনি একজন রাজনীতিক আশা করছি একজন দেশনায়কও হবেন।’ এই টুইটের জন‍্যই ফের ট্রোল হন কঙ্গনা।

Back to top button