টাইমলাইনবিনোদন

সুশান্তকে মিথ‍্যে #MeToo তে ফাঁসিয়ে অবসাদগ্রস্ত করা হয়, দু বছর পর সরব কঙ্গনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের (sushant singh rajput) মৃত‍্যুর পর বলিউড (bollywood) ইন্ডাস্ট্রির নানা লুকনো দিক প্রকাশ‍্যে এসেছে। ইন্ডাস্ট্রির নেপোটিজম, ‘বুলিং’ এইসব বিষয় চর্চায় উঠে এসেছে। বহু তারকাই মুখ খুলেছেন বিষয়গুলি নিয়ে। অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত (kangana ranawat) বারে বারে সোচ্চার হয়েছেন ‘মুভি মাফিয়া’দের বিরুদ্ধে। সোশ‍্যাল মিডিয়ায় নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন।
এবার ফের সুশান্তের হয়ে সরব হতে দেখা গেল কঙ্গনাকে। ২০১৮ সালে #MeToo র মিথ‍্যে অভিযোগে ফাঁসানো হয়েছিল সুশান্তকে। তাঁর মৃত‍্যুর পর সেই বিষয়টাকেই টেনে এনে সরব হলেন অভিনেত্রী। একটি টুইটে দু বছর আগের ওই ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে লেখা হয়, সুশান্ত সেই সময় জনসমক্ষে বলেছিলেন এই মিথ‍্যে #MeTooর অভিযোগ তাঁকে অবসাদগ্রস্ত করছে। এখন সাংবাদিকদের উচিত এই ঘটনার নেপথ‍্যে কার হাত ছিল তা খুঁজে বের করা।


এই টুইটের উত্তরে কঙ্গনা লেখেন, ‘কাউকে আলাদা করে দেওয়া খুব সহজ। তাদের মন নিয়ে খেলা, অবসাদগ্রস্ত করে তোলা আর তারপর আত্মহত‍্যার দিকে ঠেলে দেওয়া। অনেক নিরীহ প্রাণই এই ফাঁদে পড়েছে’।

উল্লেখ‍্য, জানা যায় দু বছর আগে সুশান্তের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’র অভিনেত্রী সঞ্জনা সাঙ্ঘি তাঁর বিরুদ্ধে ‘#MeToo’র অভিযোগ আনেন। সেই সময় অভিনেতা বারংবার দাবি করেছিলেন এই অভিযোগ মিথ‍্যে। তাঁকে ফাঁসানো হচ্ছে। এমনকি সঞ্জনার সঙ্গে নিজের চ‍্যাটও প্রকাশ করেন প্রমাণ হিসাবে। সেই সময় দিল বেচারার পরিচালক মুকেশ ছাবরাও সহমত হয়েছিলেন সুশান্তের সঙ্গে। তাঁর পাশেও দাঁড়িয়েছিলেন তিনি।

Back to top button