টাইমলাইনবিনোদনভারত

বলিউডের চিন্তায় কপালে ভাঁজ কঙ্গনার, বললেন ‘সন্ত্রাসবাদী’ থেকে বাঁচাতে হবে বলিউডকে

বাংলাহান্ট ডেস্ক: আট ধরনের সন্ত্রাসবাদীর (terrorism) থেকে বাঁচাতে হবে বলিউডকে (bollywood), এমনটাই মনে করেন কঙ্গনা রানাওয়াত (kangana ranawat)। এই আট সন্ত্রাসবাদী হল নেপোটিজম, ড্রাগ মাফিয়া, নারী পুরুষ ভেদাভেদ, ধর্মীয় ও আঞ্চলিক সন্ত্রাসবাদ, বিদেশি ছবি, পাইরেসি, শ্রমিক শোষন ও প্রতিভার শোষন।

শনিবার একের পর এক টুইটে বলিউডের প্রতি নিজের চিন্তা ব‍্যক্ত করেন কঙ্গনা। বলিউডকে সন্ত্রাসবাদের সাত থেকে বাঁচানোর দাবি রাখেন তিনি।


হলিউড ছবির মুক্তি নিয়ে তুললেন প্রশ্ন
একটি টুইটে অভিনেত্রী লেখেন, ‘সবথেকে ভাল ডাব করা হয় আঞ্চলিক ছবিগুলি গোটা ভারতে মুক্তি পায়না। কিন্তু হলিউড ছবি মুক্তি পায়। এর কারন হল খারাপ মানের হিন্দি ছবি ও সিনেমাহলে তাদের একাধিপত‍্য।’

তেলুগু ইন্ডাস্ট্রি ভারতের সবথেকে বড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি
কঙ্গনার মতে বলিউড নয়, তেলুগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিই সবথেকে বড় ভারতের মধ‍্যে। তিনি লেখেন, ‘এটা ভুল যে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি সবথেকে বড়। তেলুগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি আরও বড় সাফল‍্য লাভ করেছে এবং বেশ কয়েকটি ভাষায় গোটা দেশের জন‍্য ছবি তৈরি করছে।’

সব ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিগুলিকে একত্রে আনার অনুরোধ
প্রধানযন্ত্রীর কার্যালয়কে টুইটে ট‍্যাগ করে কঙ্গনা লেখেন, ‘ফিল্ম গোটা দেশকে একত্র করার ক্ষমতা রাখে। কিন্তু প্রথমে এই আলাদা আলাদা ইন্ডাস্ট্রিগুলোকে একত্র করতে হবে যাদের ভিন্ন ভিন্ন পরিচয় আছে কিন্তু একত্রে কোনো পরিচয় নেই। অখন্ড ভারতের মতোই এদের একসঙ্গে আনতে হবে। তাহলে গোটা বিশ্বে আমরা এক নম্বরে থাকব।’

প্রসঙ্গত, এর মাঝে উত্তরপ্রদেশের মুখ‍্যমন্ত্রী যোগী আদিত‍্যনাথ রাজ‍্যে ভারতের সবথেকে সুন্দর ফিল্মসিটি বানানোর কথা ঘোষনা করেন। এর জন‍্য তিনি নয়ডা, গ্রেটার নয়ডা ও যমুনা এক্সপ্রেসওয়ের কাছাকাছি জায়গাগুলির কথা চিন্তাভাবনা করছেন। তাঁর কথায়, এই নতুন ফিল্মসিটি যে শুধুমাত্র পরিচালকদের জন‍্য নতুন বিকল্পের সন্ধান দেবে তাই নয় বরং আরও রোজগারের সন্ধানও দেবে।

Back to top button