টাইমলাইনবিনোদন

বড়সড় বিপদে পড়লো কঙ্গনা! কিছু কৃষকের বিরুদ্ধে কথা বলায় দায়ের হল অভিযোগ

বাংলাহান্ট ডেস্ক: অভিনয় জগতে‘কুইন’ হলেন কঙ্গনা রানাওয়াত (kangana ranawat) । বলিউডে বলা যায় নিজের আলাদা একটি ব্র্যান্ড তৈরি করে নিয়েছেন তিনি। অভিনয়ে তাঁর প্রতিভা নিয়ে নতুন কিছু বলার নেই। কুইন, মণিকর্ণিকা, তনু ওয়েডস মনু, জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া একের পর এক ছবিতে নিজের অভিনয় দক্ষতা তুলে ধরেছেন কঙ্গনা।

তবে শুধু অভিনয় নয়, রাজনীতি থেকে শুরু করে সব বিষয়েই নিজের মতামত জাহির করতে পিছপা হন না কঙ্গনা। এর জন‍্য তাঁকে নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। তবে সেসবে কোনোদিনই বিশেষ পাত্তা দেননি অভিনেত্রী। সম্প্রতি কৃষি বিল সম্পর্কে মুখ খুলে নেটিজেনদের বিরাগ ভাজন হয়েছেন তিনি। কঙ্গনার বিরুদ্ধে দায়ের হল মামলা।

কৃষকদের ‘সন্ত্রাসবাদী’ বলার অভিযোগে কঙ্গনার বিরুদ্ধে অপরাধ আইনের ৪৪, ১০৮, ১৫৩, ১৫৩এ ও ৫০৪ ধারায় মামলা দায়ের হয়। কর্ণাটকের টুমকুরের বিচারবিভাগীয় ম‍্যাজিস্ট্রেট আদালতে দায়ের হয় এই অভিযোগ।

সম্প্রতি পাশ হওয়া কৃষি বিলের বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়। কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পথে নেমেছে লক্ষ লক্ষ কৃষক। এমনকি কৃষকদের আশ্বস্ত করে নূন‍্যতম সহায়ক মূল‍্য নিয়ে ধোঁয়াশা কাটালেও মন গলেনি তাদের।

এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর টুইট রিটুইট করে প্রতিবাদী কৃষকদের তীব্র কটাক্ষ করলেন কঙ্গনা। তিনি লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জি যে ঘুমিয়ে আছে তাকে জাগানো যায়, যে বোঝে না তাকে বোঝানো যায়। কিন্তু কেউ ঘুমানোর অভিনয় করলে বা না বোঝার অভিনয় করলে তাকে বুঝিয়ে আপনার কি লাভ? এরা সেই সন্ত্রাসবাদী, CAA তে কারোর নাগরিকত্ব যায়নি। কিন্তু এরা রক্তের নদী বইয়ে দিয়েছিলেন।’

কঙ্গনার এই টুইটের পর শোরগোল পড়ে যায় নেটদুনিয়ায়। কৃষকদের সন্ত্রাসবাদী বলে তিনি অপমান করেছেন বলে অভিনেত্রীকে তোপও দাগেন নেটিজেনদের একাংশ। অপরদিকে এই শোরগোল শুরু হতেই আরো একটি টুইট করে নিজের সপক্ষে যুক্তি দেন কঙ্গনা।

 

তিনি লেখেন, ‘শ্রী কৃষ্ণের যেমন নারায়ণী সেনা ছিল তেমনি পাপ্পুরও নিজের চাম্পু সেনা আছে যারা শুধুমাত্র গুজবের ভিত্তিতে লড়াই করতে জানে। এটা আমার আসল টুইট। কেউ যদি প্রমাণ করতে পারে আমি কৃষকদের সন্ত্রাসবাদী বলেছি, আমি ক্ষমা চেয়ে চিরদিনের জন‍্য টুইটার ছেড়ে দেব।’

Back to top button