টাইমলাইনভারতরাজনীতি

বিলাসবহুল জীবনযাপন করছেন ‘বেরোজগার’ কানহাইয়া, ছবি পোস্ট করতেই নেটদুনিয়ায় কটাক্ষের শিকার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ একদা সিপিএমের শক্ত লাঠি হওয়া সত্ত্বেও, আজ সেই দলের সঙ্গে কোন সম্পর্কই রাখেননি কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar)। সদ্য সিপিএমের (cpim) সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে কংগ্রেসের (congress) হাত ধরেছেন প্রাক্তন এই বাম নেতা। এমনকি কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার আগেই, বিহারে সিপিআই রাজ্য অফিস থেকে তাঁর লাগানো এসিও খুলে নিয়ে যান কানহাইয়া কুমার।

বামপন্থার আদর্শকে সামনে রেখে যে ‘হাম ছিন কে লেঙ্গে আজাদি’ ধ্বনি তুলেছিলেন কানহাইয়া কুমার। আজ সেটাই নিজে মেনে চলতে না পেরে ছেড়েছেন বামেদের হাত। আর নিজের কথাই না রাখতে পারার কারণে স্যোশাল মিডিয়ায় একাধিকবার ট্রোলের শিকারও হতে হয়েছে জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমারকে।

Kanhaiya Kumar

এরই মধ্যে নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করায় ফের সমালোচিত হলেন কানহাইয়া কুমার। স্যোশাল মিডিয়ায় শুরু হয় ট্রোলের বন্যা। বিলাসবহুল এক ঘরে বসে সোফার উপর পা তুলে কিছুটা বিলাসিতার ভঙ্গিতে বই পাঠরত এক ছবি শেয়ার করেন কানহাইয়া কুমার। আর কানহাইয়ার শেয়ার করা এই ছবি নিয়েই শুরু হল ট্রোল।

এই ছবি শেয়ার করার সঙ্গে সঙ্গে ক্যাপশনে লেখেন, ‘যদি আমি চুপ করে থাকি, তাহলে মানুষ আরও বেশি করে ভুল বুঝবে। যা আমি বলিনি, তাঁরা তাও শুনবে (বশির বদর)’।

স্যোশাল মিডিয়ায় কানহাইয়ার এই ছবি শেয়ারের সঙ্গে সঙ্গেই আসতে থাকে নানারকম ব্যাঙ্গূক্তি সুচক কমেন্ট। কেউ বলে বসলেন, ‘শরম নেহি আহি তুঝে… তেরি মা চুলা ফুঁকতি হ্যাঁয়…অর তু এহা রসেই ঝাড় রাহি হ্যাঁয়’। আবার কেউ বললেন, ‘মার্ক্সবাদ সে আজাদি’।

Related Articles

Back to top button