টাইমলাইনভারত

মানবতার খাতিরে ঈদে বিক্রির জন্য কেনা জামা কাপড় বন্যা দুর্গতদের মধ্যে বিলিয়ে দিলেন নৌশাদ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কেরলে লাগাতার বৃষ্টির প্রকোপ জারি। কিন্তু এই বৃষ্টি আর বন্যার মধ্যে একজন মানুষ সবার মুখে হাসিয়ে ফুটিয়ে দিলো। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ব্যাক্তির প্রশংসা হচ্ছে দেশ জুড়ে। কেরলের এর্নাকুলমের স্থানীয় জামা-কাপড় ব্যাবসায়ি নৌশাদ বকরি ঈদে বিক্রির জন্য কেনা সমস্ত জামা-কাপড় ত্রাণ শিবিরে দান করে দেন। এবার বকরি ঈদে নৌশাদের জামা-কাপড় তাঁরা পড়বে, যারা বন্যায় সমস্ত খুইয়ে দিয়েছে।

রাজেশ শর্মার নেতৃত্ব ভলান্টিয়ার্স এর একটি দল কেরলের মালাবার এলাকায় ত্রাণ পাঠানোর জন্য ত্রাণ সামগ্রী একত্রিত করছিল। মালাবার এলাকায় বিনাশকারি বন্যা আর ধসের কারণে এলাকাবাসী ব্যাপক পরিমাণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ত্রাণ শিবিরের কথা জানতে পেরে, নৌশাদ ভলান্টিয়ার্সদের তাঁর দোকানে ডেকে সমস্ত জামা – কাপড় দান করে দেন। সব বয়সী মানুষদের জন্য, বিশেষ করে বাচ্চা আর মহিলাদের জন্য নতুন নতুন জামা – কাপড় বিক্রির জন্য কিনেছিলেন নৌশাদ।

রবিবার বিকেলে রাজেশ এই ঘটনার বিবরণ দেওয়ার জন্য একটি ফেসবুক লাইভ করেন। আর রাজেশের ওই ফেসবুক লাইভ গোটা দেশে ভাইরাল হয়ে যায়। নৌশাদকে ওই ভিডিওতে বলতে শোনা যাচ্ছে যে, ‘আমরা যখন এই পৃথিবী ছেড়ে চলে যাব, তখন আমাদের সাথে কিছুই যাবেনা। দুর্গতদের সাহাজ্য করাই হল আমার কামাই। কালকের বকরি ঈদ আমি এই খুশি নিয়েই পালন করব।” নৌশাদ বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়াতে ৫ টি বস্তা ভর্তি জামা – কাপড় দেন।

কেরলের সার্বজনীন নির্মাণ মন্ত্রী জি. সুধাকরন নৌশাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘নৌশাদ সমাজের জন্য অনেক বড় একটি বার্তা দিয়েছে।” মালায়ালাম অভিনেতা আসিফ আলিও নৌশাদের এই কাজের প্রশংসা করেন। আলী ফেসবুকে লেখেন, ‘আমাদের কেউ ততদিন বিফল করতে পারবে না, যতদিন নৌশাদের মতো মানুষ আমাদের মধ্যে থাকবে। নৌশাদের মতো মানুষ আমাদের সাহাজ্যের জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকে।”

Back to top button