টাইমলাইনবিনোদন

পটকাকে যা নয় তাই বলে অপমান সৌজন‍্যর, ক্ষেপে লাল ‘খড়কুটো’ অনুরাগীরা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: স্টার জলসার (star jalsha) অন‍্যতম জনপ্রিয় বাংলা সিরিয়াল (serial) ‘খড়কুটো’ (khorkuto)। সিরিয়ালের টিআরপি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে চরিত্রগুলির জনপ্রিয়তা। দর্শকদের মুখে মুখে ঘুরছে এখন ‘সৌগুন’ এর নাম। খড়কুটোর নায়ক নায়িকা সৌজন‍্য (soujonno) ও গুনগুনের (gungun) জুটিকে ভালবেসে এই নামই দিয়েছেন অনুরাগীরা। তবে এর সঙ্গে আরো একটি নামও জায়গা করে নিয়েছে। আর তা হল ‘পটকা’ (potka)।

সৌজন‍্যর কাকা পটকার চরিত্রে অভিনয় করছেন অম্বরীশ ভট্টাচার্য্য। পটকার হাসিখুশি চরিত্রটি দর্শকদের অন‍্যতম পছন্দের। সেই পটকারই মন খারাপ একেবারেই সইতে পারছেন না খড়কুটোর দর্শকরা। আর তার জন‍্য তারা কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন স্বয়ং সৌজন‍্যকে।
কিন্তু পটকার মন খারাপের কারণটা কি? আসলে খড়কুটো পরিবারের সকলে মিলে হানিমুনে শান্তিনিকেতন যাওয়ার প্ল‍্যান হয়েছে। কিন্তু কাজের চাপের দোহাই দিয়ে বেঁকে বসেছে সৌজন‍্য। তাই গুনগুন ও সৌজন‍্যকে কাছাকাছি আনতে প্ল‍্যান করেন পটকা। গুনগুনের শরীর খারাপের কথা বলে শান্তিনিকেতনে নিয়ে আসেন সৌজন‍্যকে।

কিন্তু সেখানে এসে সমস্তটা জানতে পেরেই পটকার উপর ক্ষেপে যায় সৌজন‍্য। কাকার উপর রেগে গিয়ে তুমুল চোটপাট করে বসে সৌজন‍্য। পটকা মন খারাপ করে চিঠি লিখে বেড়ানোর প্ল‍্যান বাতিল করে ফিরে আসেন। শপথ নেন আর কারোর সঙ্গেই মজা করবেন না।
আর এতেই সৌজন‍্যর উপর চটেছেন দর্শকরা।

সোশ‍্যাল মিডিয়ায় দাবি করা হচ্ছে সৌজন‍্য যেন পটকার কাছে ক্ষমা চায়। পটকাকে আগের মতো করে ফিরেও পেতে চাইছেন খড়কুটো প্রেমীরা। এই প্রসঙ্গে অম্বরীশ জানান, পুরো কৃতিত্বটাই লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ‍্যায়ের। তিনি আরো জানান, পটকার অভিমান ভাঙবে। তবে তার জন‍্য বেশ পরিশ্রম করতে হবে সৌজন‍্য গুনগুনকে।

Back to top button