টাইমলাইনবিনোদন

প্রসেনজিৎ-শ্রাবন্তীর মধ‍্যে মিল কোথায়? তিন বিয়ে নিয়ে খোঁচা ‘বং গাই’ কিরণের!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দেবের (Dev) অভিনীত ছবির থেকে সেই ছবির প্রচার অনেক বেশি বিনোদনমূলক হয়, এমন কথা অনেকের মুখেই শোনা গিয়েছে। বেশ কয়েক বছর হল তথাকথিত মূলধারার ছবির মধ‍্যেও একটু ভিন্ন ধরণের গল্প নিয়ে কাজ করছেন দেব। দর্শকরা পছন্দও করছেন সুপারস্টারের নতুন রূপ। আর সেসব ছবির প্রচারের জন‍্য মাথা খাটিয়ে অন‍্য রকমের প্রচারের আইডিয়া বের করছেন দেব ও তাঁর টিম।

আর তিন দিন পরেই দেব ও প্রসেনজিতের (Prosenjit Chatterjee) ‘কাছের মানুষ’ ছবি মুক্তি পাচ্ছে। এই ছবির প্রচারে আরো একজনকে সঙ্গে নিয়েছেন তাঁরা। জনপ্রিয় ইউটিউবার বং গাই ওরফে কিরণ দত্ত (Kiran Dutta)। প্রসেনজিৎ দেবকে চ‍্যালেঞ্জ করেছিলেন তিনি, যাত্রীবোঝাই লোকাল বাসে উঠতে হবে। সেই চ‍্যালেঞ্জ গ্রহণও করেন দুই সুপারস্টার।


সবটাই যে প্রচারের অঙ্গ তা বুঝতে বাকি ছিল না কারোরই। সেই মতো লোকাল বাসে চেপে আড্ডা দিতে দেখা যায় দেব, প্রসেনজিৎ এবং কিরণকে। যাত্রীরা অনেকেই তিনজনের সঙ্গে সেলফি তোলার সুযোগ ছাড়েননি। দেব বলেন, শেষ কবে পাবলিক বাসে চেপেছেন মনে নেই। টিকিটটা যত্ন করে রেখে দেবেন তিনি।

বাস থেকে নেমে কলকাতার রাস্তায় হেঁটেছেন তিনজন, ফুটপাতের চায়ের দোকান থেকে মাটির ভাঁড়ে চা খেয়েছেন। পুজো দিয়েছেন লেক কালীবাড়িতে। বাস সফর সেরে অটোতেও উঠতে দেখা যায় তিনজনকে। দুই সুপারস্টারের মাঝে কিছুটা যেন জড়সড় কিরণ। তারপরেই অবশ‍্য আড্ডায়, মজায় কেটে যায় জড়তা।

প্রসেনজিৎকে কিরণ প্রশ্ন করেন, তাঁর মা বুম্বাদার ভক্ত। তিনি নিজেও তাঁর ভক্ত। এরপর হয়তো তাঁর সন্তান হলেও সেও বুম্বাদার ভক্ত হবে। প্রসেনজিতের কি বয়স আর বাড়বে না? উত্তরে অভিনেতা বলেন, এমন অনেক পরিবারের কথাই তিনি জানেন যেখানে তিন চার প্রজন্ম তাঁর ভক্ত। এটা তাঁর কাছে আশীর্বাদ স্বরূপ।


কিরণ জানান, প্রসেনজিৎ পুত্র তৃষাণজিতের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। বং গাইয়ের ভক্ত তৃষাণজিৎ। পাশাপাশি বাবাকে নিয়ে আরো রোস্ট ভিডিও দেখারও নাকি ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি। ‘ঘরশত্রু বিভীষণ’ এর প্রসঙ্গে প্রসেনজিৎ বলেন, তিনি নিজেই নিজেকে নিয়ে খিল্লি করেন। তাছাড়া ৪০ বছর কাজ করার পর এখন আর এসবে পাত্তা দেন না তিনি।

একই কথা দেবেরও। তিনি চান তাঁকে নিয়ে ট্রোল হোক। কারণ যে সফল তাকে নিয়েই চর্চা হয়। কিরণ জিজ্ঞাসা করেন, বিয়ে টিয়ে করবেন না নাকি দেব? সঙ্গে সঙ্গে অভিনেতার উত্তর, “কেন করব না নিশ্চয়ই করব। সঠিক সময়ে করব। তুই বলার আগেই নিমন্ত্রণ করব।” বলিউড বয়কট প্রসঙ্গও তোলেন কিরণ। ভয় লাগে না?

দেবের সপ্রতিভ উত্তর, সাউথ সিটিতে থাকি, সাউথ সিটি মলে সিনেমা দেখি। ভয় কেন লাগবে? শুনে মুখ চুন কিরণের। পাশেই বসা প্রসেনজিৎ বলে ওঠেন, “হ‍্যাঁ, বিয়েটা কর তো। দাঁড়িয়ে থেকে তোর বিয়েটা দিতে হবে তো নাকি! না হলে আমার চার নম্বর শুরু যাবে!” এরপরেই এক বিস্ফোরক প্রশ্ন করে বসেন কিরণ।

শ্রাবন্তী আর প্রসেনজিতের মধ‍্যে মিল কোথায়? তিনটি বিয়ের ইঙ্গিত পেয়ে অপ্রস্তুত দেব বলে ওঠেন, “এবার তোকে মারব বেটা!” তড়িঘড়ি কিরণের উত্তর, দুজনেরই পদবী চট্টোপাধ‍্যায়। হেসে ফেলেন দেব প্রসেনজিৎ দুজনেই।

Related Articles