টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

কোহলি অধিনায়কত্ব ছাড়েনি, ছাড়ানো হয়ছে! পাক তারকার বিস্ফোরক বয়ানের ভিডিও ভাইরাল

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: কিছুদিন আগেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ হারার পর এই ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন বিরাট কোহলি। এর আগে সেপ্টেম্বরে টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। পরবর্তীকালে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার ঠিক আগে বিসিসিআই তাকে একদিনের ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব থেকেও সরিয়ে দেয়। তার জায়গায় এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে রোহিত শর্মাকে। এর পেছনে বোর্ডের নিজস্ব যুক্তি দেখিয়ে বলেছে যে নির্বাচকরা সাদা বলের দুই ফরম্যাটে একজনই অধিনায়ক চান। তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এরপর থেকেই অধিনায়কত্ব নিয়ে বিসিসিআই ও বিরাট কোহলির মধ্যে বিরোধের একের পর এক তত্ত্ব উঠে আসতে থাকে। নানান প্রাক্তন ক্রিকেট কিংবদন্তি এই নিয়ে নিজ নিজ মতও প্রকাশ করতে থাকেন। এবার এই বিতর্ক নিয়ে বড় বিবৃতি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতারও। তিনি বলেছেন, কোহলি অধিনায়কত্ব ছাড়েননি, তাকে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিতে বাধ্য করা হয়েছে।

ওমানের মাস্কাটে লেজেন্ডস ক্রিকেট লিগে এশিয়া লায়ন্সের হয়ে খেলা শোয়েব আখতার সম্প্রতি সাংবাদিকদের বলেন, “বিরাট কোহলি নিজেও অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেননি। তিনি এটা করতে বাধ্য হয়েছেন, এটা সবাই জানে। এই মুহূর্তে সময়টা ভালো যাচ্ছে না তার, তবে তিনি মানসিকভাবে খুব শক্তিশালী খেলোয়াড়। তার যোগ্যতা নিয়ে খুব কমই কেউ সন্দেহ করবে। তিনি একজন দুর্দান্ত ক্রিকেটার। তার জন্যও হঠাৎ এত ঘটনা একসাথে ঘটে যাওয়াটা একটা ধাক্কার চেয়ে কম কিছু নয়।

বিরাট কোহলির খারাপ ফর্ম নিয়ে আখতার বলেন, “তিনি মূলত বটম হ্যান্ডের ওপর নির্ভর করে খেলেন এবং সেজন্য তিনি যখন ফর্মের বাইরে থাকে তখন এই সমস্যাটা বেশি দেখা যায়। তবে তিনি একজন বড় ব্যাটসম্যান এবং তিনি অনেক কিছু অর্জন করেছেন। আমি নিশ্চিত তিনি স্বাভাবিক ছন্দে ফিরে আসবেন। তার উচিত এখন এই বিতর্ক ভুলে শুধু ব্যাটিংয়ে মনোনিবেশ করা। শুধু বড় খেলোয়াড় পড়ে। এটি তাদের জন্য নিজেদেরকে আরও ভালো প্রমাণ করার সুযোগ। তাদের উচিত সব তিক্ততা ভুলে এগিয়ে যাওয়া।”

Related Articles

Back to top button