টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গআবহাওয়াকলকাতা

বড়সড় দুর্যোগের আশঙ্কায় ভুগছে শহর কলকাতা, বিপত্তি এড়াতে কঠোর পদক্ষেপ পুরসভার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ‘প্রকৃতির উপর কারো হাত থাকে না’, ইয়াস পরবর্তীতে এক সাংবাদিক বৈঠকে এমনই মন্তব্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (mamata benerjee)। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের ক্ষয়ক্ষতির পর ২৬ শে জুনের ভরা কোটালে আরও একটা প্রাকৃতিক দুর্যোগের আশঙ্কা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই কারণে আগে থাকতেই, প্রশাসনিক কর্তাদের সতর্ক থাকার নির্দেশও দিয়েছিলেন।

২৬ শে জুন অর্থাৎ শনিবার সকাল থেকে কলকাতার আকাশে রোদের উপস্থিতি দেখা দিলেও, বেলা বাড়তেই মেঘে ঘিরেছে আকাশ। আবহাওয়া দফতর (weather office) জানিয়েছে, শনিবার দুপুর ২ টো বেজে ২৫ মিনিট নাগাদ গঙ্গার জলস্তর বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় ১৮.২৪ ফুট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিন কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় বজ্যবিদ্যুতসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকার কারণে, গঙ্গার পাশের লকগেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতা পুরসভা। কলকাতা পুরসভার বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের সদস্য তারক সিং এবিষয়ে জানিয়েছেন, ‘শনিবার বেলা ১২ টা বেজে ১০ মিনিট থেকে বিকেল ৪ টে বেজে ১০ মিনিট পর্যন্ত গঙ্গার আশেপাশের সমস্ত লকগেট বন্ধ রাখা হবে। এই সময় লকগেটে গাড়ি চলাচলও বন্ধ থাকবে। লকগেট বন্ধ থাকার কারণে বৃষ্টির ফলে জল জমলেও, পরবর্তীতে লকগেট খুলে দিলে সেই জল নেমে যাবে’।

আবার হাওয়া অফিস জানিয়েছে, পাঞ্জাব থেকে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত মৌসুমী অক্ষরেখা গাঙ্গেয় পশ্চিমের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে। যার জেরে মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকার কারণে, দুই বঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এবছর জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে বর্ষা, অর্থাৎ সঠিক সময় অবধিই থাকবে।

Related Articles