টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

নেপালে খুন ভারতের ওয়ান্টেড ISI-র চর! সিনেমার কাহিনীর মতো ঘটে গেল ঘটনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : জহুর মিস্ত্রি, রিপুদমন সিংহ মালিকের পর এবার লাল মহম্মদ। প্রথম দুজনের মতো একই ভাবে বিদেশের মাটিতে শেষ হল ভারতের (India) আরেক শত্রু লাল মহম্মদ ওরফে লাল দরজি। ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার দাবি, নিহত লাল মহম্মদ পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই ঘনিষ্ঠ ছিল। এদেশে জাল নোট চক্রের দায়িত্বেও ছিল সে। ১৯ সেপ্টেম্বর নেপালে (Nepal) নিজের বাড়ির সামনে খুন হয় লাল দরজি।

ভাইরাল হওয়া একটি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, সোমবার নেপালে নিজের বাড়ির সামনে এক বিলাসবহুল গাড়ি থেকে নামে লাল মহম্মদ (৫৫)। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তাকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়তে শুরু করে দুই আততায়ী। বাইকে চেপে আসে তারা। গাড়ির আড়ালে লুকিয়ে কোনও ভাবে প্রাণ বাঁচানোর শেষ চেষ্টা করে ওই আইএসআই এজেন্ট। এলোপাথাড়ি গুলির শব্দে শুনে বাড়ির একতলার বারান্দায় বেরিয়ে আসেন লাল মহম্মদের মেয়ে। বাবাকে বাঁচাতে একতলার বারান্দা থেকেই ঝাঁপ দেন তিনি। কিন্তু ততক্ষণে গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে লাল মহম্মদ। বাইকে চেপে চম্পট দেয় দুই অভিযুক্ত। এখনও তাদের খোঁজ মেলেনি।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, ভারতবিরোধী বিভিন্ন কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত ছিল মৃত লাল মহম্মদ। সবচেয়ে বড় জাল নোট সরবরাহকারী ছিল সেই। শুধু তাই নয়, ভারতে আইএসআইয়ের স্লিপার সেল তৈরি, অস্ত্র-অবৈধ সামগ্রী পাচারে সাহায্য করত লাল মহম্মদ। পাকিস্তানি জেহাদি, আইএসআই এজেন্টদের আশ্রয় দিত সে। শুধু তাই নয়, দাউদ ইব্রাহিমের ডি গ্যায়ের সঙ্গেও যোগাযোগ ছিল তার। সেখান থেকেই জাল নোটের কারবার শুরু করে লাল মহম্মদ।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরে বিদেশের মাটিতে খুন হয়েছে এরকমই কুখ্যাত দুই জঙ্গি। একজন, জহুর মিস্ত্রি, অপরজন, রিপুদমন সিংহ মালিক। ১৯৯৯-এর কান্দাহার বিমান হাইজ্যাক কাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত ছিল জহুর মিস্ত্রি। কুখ্যাত সন্ত্রাসবাদী হাফিজ সৈয়দকে জেল থেকে ছাড়াবার জন্য বিমান হাইজ্যাক করেছিল জঙ্গিরা। সেই হাইজ্যাকারদের অন্যতম পাকিস্তানি জহুর মিস্ত্রিকে গত মার্চে পাকিস্তানের বুকে দাঁড়িয়ে, গুলি করে মারে দুই বাইক আরোহী দুষ্কৃতী।

১৯৮৫ সালের ২৩ জুন দিল্লি থেকে কানাডার মন্ট্রিয়লগামী এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট ১৮২ কণিষ্ক বিমানে মাঝ আকাশে বোমা বিস্ফো’রণ ঘটে। প্রাণ হারান ৩৩১ জন যাত্রী। অভিযুক্ত হিসেবে খালিস্তনি সমর্থক রিপুদমন সিংহ মালিক, ইন্দ্রজিৎ সিংহ রেয়াত এবং আজৈব সিংহ বাগরির নাম উঠে আসে। কিছুদিন আগেই কানাডায় রিপুদমন সিংহ মালিককে লক্ষ্য করে পরপর গুলি চালায় তিন দুষ্কৃতী। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। আর তারপরই নেপালে ঘটল এদিনের ঘটনা।

Related Articles