পশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচন

ভগবান কৃষ্ণের প্রসঙ্গ তুলে তথাগত রায়কে জবাব দিলেন রাজনীতির ‘প্লে বয়’ মদন মিত্র

বাংলা হান্ট ডেস্ক: মদন মিত্র। বঙ্গ রাজনীতিতে অন্যতম বিতর্কিত ও বর্ণময় চরিত্র। তিনি অনলাইনে আসা মানেই ‘লাভলি’ বার্তা দেবেন, আশায় থাকেন মদনভক্তরা। কয়েকদিন আগেই তিনি প্রকাশ্য ঘোষণা করেছিলেন, ‘আমি মদন মিত্র সোনাগাছি যাই…’। তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকসাইটে এই নেতাকে প্লে বয় আখ্যা দিয়েছিলেন তথাগত রায়।এহেন তথাগত রায়ের ‘প্লে বয়’ সম্বোধন সাদরে গ্রহণ করলেন মদন মিত্র।

মঙ্গলবার বিজেপি-র বর্ষীয়ান নেতা তথাগতর কয়েকটি টুইট নিয়ে সারাদিনই সরগরম ছিল রাজ্যের রাজনীতি। তার সঙ্গে বিনোদনের জগৎও। বিজেপি-র তারকা প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, পায়েল সরকার এবং তনুশ্রী চক্রবর্তীর টিকিট পাওায়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিদ্রুপ করে টুইট করেছিলেন তথাগত। লিখেছিলেন, ‘এই নগরনটীরা নির্বাচনের টাকা নিয়ে কেলি করে বেড়িয়েছেন আর তৃণমূলের প্লে বয় রাজনীতিবিদ মদনের সঙ্গে নৌকাবিলাসে গিয়ে সেলফি তুলেছেন। এ দিকে ভোটে হেরে ভুত হয়েছেন’। তথাগতর প্রশ্ন, কারা এঁদের টিকিট দিয়েছিল? কেনই বা দিয়েছিল’? তারই জবাবে টলিউড থেকে রাজনৈতিক মহল তথাগতর সমালোচনায় মুখর হয়।

যে বিষয় নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে মদন মিত্র জোড়েন, ‘বাংলার মেয়েদের আপনি নটি, নর্ত্যকী বলে দিলেন, ওনার মাথায় রাখা উচিত ছিল বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে এসব কথা বলা ঠিক নয়।’ এদিকে, তথাগত রায়ের ‘প্লে-বয়’ কটাক্ষ নিয়ে মদন মিত্রর সংযোজন, ‘বিশ্ব ব্রহ্মাণ্ডের সবচেয়ে বড় ‘প্লে বয়’ কে জানেন? ভগবান কৃষ্ণ। আমি তাঁরই দেখানো পথে চলি। হ্যাঁ, আমি প্লে-বয়, তবে রাজনীতির। শুধু প্লে-বয়ই নয়, ফ্ল্যামবয়েন্ট প্লে-বয় অফ পলিটিক্স।’ সব মিলিয়ে ভোটে জেতার পর খোসমেজাজে মদন মিত্র।

কয়েকদিন আগেই মুক্তমনা হওয়ার ডাক দিয়েছিলেন মদন। তিনি বলেছিলেন, ‘আমাকে একজন জিজ্ঞাসা করল আমি কোথায় গিয়েছিলাম। আমি বললাম আমি সোনাগাছি গিয়েছিলাম। লোকটা বলল, ইস্ কী বাজে কথা বলে। লোকটা আবার জিজ্ঞাসা করল, কোথায় গিয়েছিলেন?আমি বললাম জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি গিয়েছিলাম। লোকটা বলল বাবা লোকটা কী ভালো! আসলে কী জানেন, আমরা সকলেই হিপোক্রেসি করি!’

Back to top button