টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘দিলীপবাবু, আপনি ভেঙে পড়বেন না’, আচমকাই দিলীপ-স্তুতি মদনের গলায়! তুঙ্গে জল্পনা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ঘুরতে শুরু করেছে রাজনৈতিক চাকা? আগামী সময়ে কি বদল আসতে চলেছে বঙ্গ রাজনীতিতে? এক সময় যাদের মধ্যে সম্পর্ক ছিল সাপে-নেউলে, তারাই কি এবার কাছাকাছি আসতে চলেছে? বিগত কয়েকদিন ধরেই বঙ্গ রাজনীতিতে তৃণমূল কংগ্রেস (Trinamool Congress) এবং দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) মধ্যেকার সম্পর্ক ঘিরে একাধিক জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে। যেভাবে সৌগত রায় থেকে শুরু করে তৃণমূল মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’-য় বিজেপির (BJP) সর্বভারতীয় সহ সভাপতি প্রশংসা করা হয়েছে, তাতে পরবর্তী সময়ে রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট ১৮০° ঘুরে গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না বলে মত বিশেষজ্ঞদের। এর মাঝে এদিন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মদন মিত্রের বক্তব্য সেই জল্পনাই একপ্রকার উস্কে দিল।

এদিন উত্তর দিনাজপুরে একটি দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দেন মদন মিত্র। পরবর্তীতে সেখান থেকে মালদহ সার্কিট হাউসে গিয়ে ওঠেন তিনি আর সেখানে পৌঁছেই বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন তৃণমূল বিধায়ক। তিনি বলেন, “দিলীপ ঘোষকে দেখে সত্যি কষ্ট হচ্ছে। ও লাঠি ঘুরিয়ে বিজেপি দলকে শক্তিশালী করার চেষ্টা করলেও পরবর্তীতে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে দাঁড়িয়ে উঠতে পারেনি। আসলে শুভেন্দুরা গুপ্তধনের সন্ধান পেয়েছে। কিন্তু দিলীপবাবু তা পারেননি। তাই আমি ওনাকে বলব ভেঙে না পড়তে। দিলীপবাবু, আপনি লড়াই চালিয়ে যান। আপনার দল আপনাকে নিয়ে মাতোয়ারা না হলেও আপনি দলের একমাত্র পুরনো লোক।”

কয়েকদিন পূর্বে তৃণমূল কংগ্রেসে দিলীপ ঘোষের যোগদান প্রসঙ্গে সৌগত রায় বলেন, “গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে এবং পরে দিলীপ ঘোষ তৃণমূলে যোগদান করতে চেয়েছিলেন।” তাঁর এই মন্তব্যের পর চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র। একইসঙ্গে গতকাল তৃণমূলের মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’-তে দিলীপ ঘোষের ভূয়সী প্রশংসা করা হয় আর এদিন মদনের বক্তব্য সেই জল্পনাই উস্কে দিলো।

এদিন দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার পর দিলীপ ঘোষ প্রসঙ্গে মন্তব্য করার পাশাপাশি বিজেপি এবং সিবিআই ও ইডিকে একপ্রকার তুলোধোনা করেন মদন। তিনি বলেন, “বর্তমান সময়ে সিবিআইয়ের স্ট্যাটাস ক্রমশ পরিবর্তন হতে লেগেছে। আগে করোনার মতো সিবিআইয়ের নামেও একটা আতঙ্ক বিরাজ করত। কিন্তু বর্তমানে জামা কাপড় বদলানোর মতোই হয়ে গিয়েছে তাদের স্ট্যাটাস। সিবিআই এবং ইডি বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেসকে অপদস্ত করার চেষ্টা করে চলেছে।”

এরপরই তিনি বলেন, “কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাকে দিয়ে আমাদের দলকে অপদস্ত করার চেষ্টার মূলে রয়েছে বিজেপি। ওরা গণতন্ত্রকে শেষ করে দিতে চাইছে। তবে বিজেপি ভুলে গিয়েছে, যতদিন আমাদের মাথার উপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রয়েছেন, ততক্ষণ আমাদের অপদস্ত করা সহজ হবে না।”

Related Articles