টাইমলাইনবিনোদনরাজনীতি

সরকারি সাহায‍্য পাবেন সোনু সূদ, আভিনেতার প্রশংসা করে জানালেন মহারাষ্ট্রের রাজ‍্যপাল

বাংলাহান্ট ডেস্ক: পরিযায়ী শ্রমিকদের (migrant workers) নিজ রাজ‍্যে ফেরানোর জন‍্য উদ‍্যোগী হয়েছেন বলি অভিনেতা সোনু সূদ (sonu sood)। পরিযায়ী শ্রমিকদের জন‍্য নিজের খরচায় বাস ভাড়া করে তাদের নিজেদের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার ব‍্যবস্থা করেছেন তিনি। সবটাই সরকারের অনুমতি নিয়েই তিনি করেছেন বলেও জানা গিয়েছে। একথা সকলেই জানেন।
জানা গিয়েছে, লকডাউনের মধ‍্যেই ১০টি বাস ভাড়া করে বেশ কয়েকজন পরিযায়ী শ্রমিকদের নিজের রাজ‍্যে ফেরার বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন অভিনেতা। মুম্বই থেকে কর্ণাটকে যাবেন ওই পরিযায়ী শ্রমিকরা। পরিযায়ী শ্রমিকদের সব দায়িত্বই নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন অভিনেতা।


গোটা দেশের মানুষের কাছে হিরো হয়ে উঠেছেন সোনু। সকলেই নিজের নিজের মতো করে তাঁকে সম্মান প্রদান করার চেষ্টা করছেন। এবার সোনুর পাশে দাঁড়ালেন মহারাষ্ট্র সরকার। শনিবার অভিনেতাকে রাজভবনে ডেকে পাঠান মহারাষ্ট্রের রাজ‍্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়াড়ি। সোনুর কাজের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি তাঁকে সরকারি সাহায‍্যের আশ্বাসও দেন।

এই খবর নিজেই টুইটারে শেয়ার করেছেন মহারাষ্ট্রের রাজ‍্যপাল। সম্প্রতি স‍্যান্ড আর্টিস্ট অশোক বালিতে সোনুর প্রতিকৃতি তৈরি করে তাঁকে সম্মান জানান। অশোকের কথায়, সোনু সূদের জন‍্য তো আমরা যাই করি কম পড়বে। উনি মানুষের জন‍্য যা করেছেন আমরা সবাই ওনার কাছে ঋণী। কিন্তু আমরা ওনাকে সম্মান তো জানাতেই পারি।
প্রসঙ্গত, ১১ মে থেকে শুরু করে এখনও পর্যন্ত ২১টি বাসে করে ৭৫০ জন পরিযায়ী শ্রমিককে মুম্বই থেকে কর্ণাটক ও উত্তর প্রদেশ পাঠিয়েছেন তিনি। আরও ১০টি বাস বিহার ও উত্তর প্রদেশের জন‍্য রওয়ানা হয়ে গিয়েছে। অভিনেতা জানান, পশ্চিমবঙ্গ, অসম ও ঝাড়খন্ডের সরকারের থেকে অনুমতি মেলা এখনও বাকি আছে। আগামী ১০ দিনে একশোর বেশি বাস মুম্বই থেকে ছাড়বে। পুরো ব‍্যাপারটাই হচ্ছে সোশ‍্যাল ডিসট‍্যান্সিং মেনে। ৬০ জনের বসার বাসে ৩৫ জন শ্রমিক যাচ্ছেন।
এখনও পর্যন্ত ১০ হাজার শ্রমিকের স্বাস্থ‍্য পরীক্ষা করিয়েছেন সোনু ও নীতি। সবটাই নিজেদের অর্থে। ৮০০ কিমি রাস্তার জন‍্য প্রায় ৬৪ হাজার টাকা খরচ হয়েছে তাঁদের। সেখানেই ১৬০০ থেকে ২০০০ কিমি এ খরচ হয়েছে প্রায় ১ লক্ষেরও বেশি। অভিনেতা জানান, শ্রমিকদের শেষ গন্তব‍্য পর্যন্ত পৌঁছে দিচ্ছে বাস। বাসে কোনও শ্রমিককে অনাহারেও থাকতে দিচ্ছেন না সোনু। তাঁর কথায়, যতক্ষণ না সব শ্রমিক নিজেদের বাড়ি পৌঁছাচ্ছেন ততক্ষণ তিনি থামবেন না।

Back to top button
Close