টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

সরকারি উদ্যোগে শেষকৃত্য, বীরভূমের পথ দুর্ঘটনায় মোদীর পর এবার আর্থিক সহায়তার ঘোষণা মমতার

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রামপুরহাটে (Rampurhat) ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনা আর তার জেরেই এদিন মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। জল্পেশের দুর্ঘটনার পর দিন কয়েকের মধ্যে সরকারি বাসের ধাক্কায় এ দুর্ঘটনার খবর সামনে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে সর্বত্র। কয়েক মুহূর্ত পূর্বেই আর্থিক সহায়তার কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) আর এবার মৃত পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। শোক প্রকাশ করার পাশাপাশি মৃতদের পরিবারকে ২ লাখ টাকা আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে সরকারের উদ্যোগেই মৃতদের শেষকৃত্য করা হবে বলে জানিয়েছেন মমতা।

এদিন বীরভূমের মল্লারপুর থেকে রামপুরহাটের উদ্দেশ্যে ৮ মহিলা সহ একটি অটো রওনা দেয়। চাষের কাজ সেরে পারকান্দি গ্রামে তারা ফিরছিলেন বলে জানা গিয়েছে। তবে এর মাঝেই তেলডা গ্রামের কাছে ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন সকলে। সূত্রের খবর, দ্রুত গতিতে আসা একটি সরকারি বাস ধাক্কা মেরে বসে অটোকে এবং তৎক্ষণাৎ অটোটি থেকে মাটিতে পড়ে যায় সকল যাত্রী।

স্থানীয়দের দাবি, বাসকে আসতে দেখে বাহনটিকে বাঁচানোর অনেক চেষ্টা করে অটোচালকটি। তবে শেষ পর্যন্ত ৮ মহিলা সহ অটোচালকেরও মৃত্যু হয়। এরপরই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। এই ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পরেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মৃতদের পরিবার কিছু ২ লাখ টাকা এবং আহতদের ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তার কথা ঘোষণা করেন আর এবার টুইট করে শোকজ্ঞাপন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন একটি টুইট করে মমতা লেখেন, “বীরভূমে ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় আমি মর্মাহত। আট মহিলা সহ মোট ৯ জন মারা গিয়েছে। আমি সমবেদনা জানাচ্ছি।” এর পরেই তিনি জানান, “মৃতদের পরিবারকে দু লাখ টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। সমব্যথী প্রকল্পের অধীনে এই আর্থিক সহায়তা করা হবে। একই সঙ্গে মৃতদের শেষকৃত্যের জন্য সরকারের তরফ থেকে ২ হাজার টাকা দেওয়ার পাশাপাশি বিশেষ অনুদানের ব্যবস্থা থাকবে।”

Related Articles