টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

প্রতিশ্রুতি পূরণ মমতার, শীতলকুচির নিহতদের পরিবারের একজন করে পেলেন চাকরীর নিয়োগপত্র

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভোট মরশুমে চরম উত্তেজনা ছড়িয়েছিল শীতলকুচিতে (Sitalkuchi)। পরিস্থিতিতে সামলাতে গিয়ে গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। সেখানে ৪ জনের মৃত্যুর পরবর্তীতে তোলপাড় হয়ে উঠেছিল বঙ্গ রাজনীতি। ক্ষমতায় ফিরে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণের দিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) ঘোষণা করেছিলেন- শীতলকুচির মৃত পাঁচজনের পরিবারের এক এক সদস্যকে সরকারি চাকরি দেওয়া হবে। এবার সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

শপথ গ্রহণের ৬ দিনের মধ্যেই বুধবার রাতে ওই পাঁচজনের পরিবারের এক একজন সদস্যকে সরকারি চাকরির নিয়োগ পত্র তুলে দেওয়া হল। সেই মুহূর্তের ছবি স্যোশাল মিডিয়ায় তুলে ধরলেন কোচবিহারের জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়। কোচবিহারের ল্যান্সডাউন হলে এই কাজ সম্পন্ন করা হল।

জেলাশাসক ও অন্যান্য আধিকারিকদের মাধ্যমে বুধবার কোচবিহারের ল্যান্সডাউন হলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির পক্ষ থেকে ওই মৃত সদস্যদের প্রত্যেকের পরিবারের একজনের হাতে স্পেশাল হোমগার্ডের নিয়োগ পত্র তুলে দেওয়া হয়। আবার বৃহস্পতিবারও তাঁদের নিয়োগ সংক্রান্ত কিছু নথি জমা দেওয়ার জন্য ডেকে পাঠানো হয়।

প্রসঙ্গত, প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিধানসভা নির্বাচন চলাকালীন রীতিমতো অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয় কোচবিহারের শীতলকুচিতে। উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকার ১২৬ নম্বর বুথ। পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে সিআইএসএফ গুলি চালালে নিহত হন চারজন। ওইদিনই শীতলকুচি অন্য একটি বুথে অশান্তির জেরে নিহত হন আরো একজন। এই ঘটনার পরবর্তীতে নানারকম রাজনৈতিক চাপানউতোর পেরিয়ে বিএসএফের সহায়তায় মৃতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে ১৩ মে শীতলকুচি যাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। পাশাপাশি কোচবিহারের অন্যান্য আক্রান্তদের সঙ্গেও কথা বলবেন তিনি।

Related Articles

Back to top button