টাইমলাইনভারতরাজনীতি

‘গণতন্ত্রকে বুলডোজ করছে’, উদ্ধব ঠাকরের বিচার চেয়ে বিজেপিকে বেনজির আক্রমণ মমতার

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বর্তমান সময়টা যেন কিছুতেই ভালো যাচ্ছে না মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের। একদিকে যখন মহারাষ্ট্রে শাসন ক্ষমতা বাঁচানোর জন্য তৎপর হয়ে উঠেছেন তো অপরদিকে আবার করোনাবিধি লঙ্ঘন করার জন্য তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর পর্যন্ত দায়ের করা হয়েছে। দলের ভিতরে চল্লিশের বেশি বিধায়ক বর্তমানে বিদ্রোহ করে চলেছেন। এমনকি বিজেপিতে যোগ দেয়ার হুঁশিয়ারি পর্যন্ত দিয়েছেন তারা আর মহারাষ্ট্র সরকারের এই বিপদের সময় এবার উদ্ধব ঠাকরের পাশে দাঁড়ালেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অতীতে একাধিকবার বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে সমর্থন জানানোর কথা প্রকাশ্যে ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী আর এবার তা কাজে প্রমাণ করে দেখালেন মুখ্যমন্ত্রী। মহারাষ্ট্রের উত্তপ্ত পরিস্থিতি মাঝে অবশেষে উদ্ধব ঠাকরের পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপি সরকারকে একহাত নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপিকে তুলোধোনা করে তিনি বলেন, “বিজেপি বর্তমানে মহারাষ্ট্র সরকার ফেলে দেওয়ার জন্য অনৈতিক কাজ করে চলেছে। বহু বিধায়কদের এখন অসমে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, বিধায়ক কেনাবেচা চলছে। কিন্তু সেখানে যে বন্যার পরিস্থিতি ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে, সে বিষয়ে কারোর কোনও চিন্তা নেই। গণতন্ত্রকে ক্রমাগত বুলডোজ করে চলেছে বিজেপি।”

এরপরেই তিনি উদ্ধব ঠাকরের জন্য বিচার পর্যন্ত চান এবং বিজেপিকে কটাক্ষ করে বলেন, “একদিন যখন আপনাদের সবাইকে যেতে হবে, তখন কি পদক্ষেপ নেবেন? এইভাবে শুধুমাত্র টাকার বিনিময়ে সরকার ভাঙা উচিত নয়। মনে রাখবেন, আপনাদেরও তো এভাবে কেউ ভাঙতে পারে।”

এদিন মহারাষ্ট্র সরকারের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি ত্রিপুরার উপনির্বাচন প্রসঙ্গ উঠে আসা মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে। উল্লেখ্য, বর্তমানে ত্রিপুরার বুকে চারটি কেন্দ্রে উপনির্বাচন হচ্ছে আর সেই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানান, “ত্রিপুরার মানুষকে উপনির্বাচনে ভোট দেওয়া থেকে বিরত করছে বিজেপি। কেউ যদি আটকাতে যাচ্ছে, তাহলে তাকে বুলডোজ পর্যন্ত করে দেওয়া হচ্ছে।”

Related Articles

Back to top button