টাইমলাইনরাজনীতি

বিজেপি মানে লজ্জা লজ্জা, বললেন মমতা ব্যানার্জী সঙ্গে করলেন বড় ঘোষণা

মমতা ব্যানার্জী কে (Mamata Banerjee) আরো একবার তীব্রভাবে মুখর হতে দেখা গেল বিজেপির বিরুদ্ধে। বেশ কয়েকদিন ধরে কৃষি বিল প্রসঙ্গে বিরোধীরা এক সুরে কেন্দ্র সরকারকে ঘিরতে শুরু করেছে। তৃণমূলের সাংসদ থেকে শুরু করে আম আদমি পার্টির সাংসদরা কৃষি বিল নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মুখর আওয়াজ তুলেছেন। এমনকি কংগ্রেস পার্টিও এই বিলকে কৃষক বিরোধী বলে আখ্যা দিয়েছে। মমতা ব্যানার্জী বলেছেন এখন কৃষি বিল নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক দলগুলি এক হয়েছে, পরবর্তীযে শ্রমিক ইস্যুতেও দক হবে।

মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিকে আক্রমন করে বলেন, কেঁচো ধরার ক্ষমতা নেই অজগর ধরবে, নকুলদানা খাওয়ার ক্ষমতা নেই কমলাভোগ খাবে। রবিবার রাজ্যসভায় কৃষি বিল নিয়ে দারুণ গণ্ডগোল হয়েছিল। রাজ্যসভায় মাইক ভাঙা, রুল বুক ছুঁড়ে ফেলার মতো ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৮ জন সাংসদকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। আর এখন কৃষিবিল নিয়ে আরো একবার বিজেপিকে একহাতে নিয়েছেন মমতা ব্যানার্জী।

মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন কৃষি বিল যেভাবে পাশ করানো হয়েছে তাতে আমি বলবো বিজেপি দেশের লজ্জা, ছিঃ বিজেপি ছিঃ। মমতা ব্যানার্জী আরো বলেন, ‘কৃষকদের ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ার হচ্ছে। রাজ্য সরকারগুলির সর্বনাশ করার চেষ্টা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন মমতা ব্যানার্জী। উনি বলেন, রাজ্য সরকার গুলির ক্ষমতা একের পর এক করে কেড়ে নেওয়া হচ্ছে, কেন ক্ষমতা কাড়া হবে? কেন্দ্র নির্বাচিত রাজ্য সরকারগুলিও নির্বাচিত, তাহলে কি ঘরে বসে একজন রাজ করবে? প্রশ্ন তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। নির্বাচন সামনে এলেই বিজেপি লোকজনের ধর্ম দেখতে শুরু করে বলেও আক্রমন করেন মমতা ব্যানার্জী।

আমরা হিটলার কথাটা কেন বলি, পুরো ফাসিজম রাজ চলছে, কেউ প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে দাঙ্গায় জড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। বিজেপিকে আক্রমন করতে গিয়ে দিল্লী দাঙ্গার প্রসঙ্গও টেনে আনেন মমতা ব্যানার্জী।
বলেন, যোগেন্দ্র যাদব, সীতামরাম ইয়েচুরিদের চার্জশিটে নাম রাখা হয়েছে। মমতা বানার্জী বলেন, তাদের সাথে আমার রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকতেই পারে। মমতা ব্যানার্জী বলেন, আমরা সর্বস্তরের মানুষদের এর প্ৰতিবাদের আহ্বান জানায়। কেন্দ্র সরকারের উপর প্রতিবাদ জানাতে তৃণমূল ধর্না দেবে বলেও ঘোষনা করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

Back to top button