fbpx
টাইমলাইনদুর্গা পূজো ২০১৯পশ্চিমবঙ্গ

আজ প্রকাশ পাবে মুখ্যমন্ত্রীর লেখা পুজোর গান ” উৎসব সবার”

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আজ মহালয়ার পূণ্য তিথি। পুজো আসছে।আজ ভোরে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের গলায় মহালয়ার সুর সূচনা করে দিয়েছে পুজোর।  তাল মেলাতে তৈরি বাঙালিও। সারা শহর জুড়ে মোড়ে  মোড়ে এই এত প্রস্তুতি যার জন্য, সেই মায়ের আসার আহ্বান হলো আজ সকালেই। বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো। কিন্তু এই উৎসব কোনো ধর্মের উৎসব না, এই উৎসব মিলে মিশে এক হয়ে যাওয়ার উৎসব সকল ধর্মের। মানুষের মূল ধর্ম তো মনুষ্যত্ব । কিন্তু তাও কিছু মানুষ ছড়িয়ে দেয় সাম্প্রদায়িক বিভেদ। মা এবার আসুক সাম্প্রদায়িক অশান্তি কে বধ করতে। সবাই একসাথে মিলে মিশে এক হোক, ঢাকের বাদ্যি র রেল মেতে এক তালে নাচে গানে হই হট্টগোলে এক হোক সব।

এই বার্তা নিয়েই পুজোর ঠিক আগে কলম ধরলেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। পুজোর প্রাক্কালে তিনি হলেন গীতিকার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।  লিখে ফেললেন ” উৎসব সকলের” গানটি যেটি এবছর সুরুচি সংঘের থিম সং হিসেবেও শোনা যাবে। এই গানকে সুর দিয়েছেন বিশিষ্ট বাঙালি সুরকার জিত গাঙ্গুলি এবং শ্রেয়া ঘোষালের অসাধারন গলায় প্রকাশ এই গানের। এই গানে তিনি লিখেছেন, ” উৎসবের অঙ্গনে আজ সবার নিমন্ত্রণ, /উৎসবের শুভ্রালকে আলোকিত মন।”” মেতে ওঠে দেখ ত্রিভুবন আজ প্রাণের এই উৎসবে/ অনাবিল এই আনন্দ হতে কে বা বঞ্চিত রবে/ ধূপ প্রদীপে আলোর মায়া সমারোহের ঘরে/ উৎসব আজ বেঁধেছে সবার মহা মিলন বন্ধ্ণে”। দেবী পক্ষের শুভ সূচনায় অর্থাৎ মহালয়ার এই থিম সং প্রকাশ পাবে যার মূল ভিডিও টে দেখা যাবে বিশিষ্ট অভিনেতা পরমব্রত এবং সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান। শুধু থিম সং না, অনেকের ফোনের কলার টিউনেও এখন বেজে উঠছে এই গান।

Leave a Reply

Close
Close