টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

পাঁচিল টপকে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে ঢুকে পড়ল এক ব্যক্তি! প্রশ্নচিহ্নের মুখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কয়েকদিন পূর্বে ভবানীপুরে মুখ্যমন্ত্রীর পাড়াতে ঘটে যায় জোড়া খুনের ঘটনা, যা নিয়ে রাজ্যে নিরাপত্তা ব্যবস্থাটি প্রশ্নচিহ্নের মুখে পড়ে যায় আর এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির পাঁচিল টপকে এক ব্যক্তির প্রবেশ করার ঘটনা সামনে এলো, যা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা বাংলায়। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সকলের নজর এড়িয়ে কিভাবে সেই ব্যক্তিটি স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে প্রবেশ করলো, তা ভেবে সন্দিহান সকলে।

শুধু তাই নয়, পাঁচিল টপকে বাড়িতে প্রবেশ করার পর গোটা রাত ধরে সেখানেই অবস্থান করে ব্যক্তিটি। সকালে গোটা ব্যাপারটি নজরে আসার পর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে ঢোকার পিছনে কারণ কি, তা এখনো স্পষ্ট জানা যায়নি।

সুত্র মারফত জানা গিয়েছে যে, গতকাল রাত একটার সময় সুযোগ পেয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির পাঁচিল টপকে ভেতরে প্রবেশ করে এক ব্যক্তি। এমনকি সকলের নজর এড়িয়ে সারারাত সে একটি জায়গাতে অবস্থান করে থাকে। যদিও পরবর্তীতে তাকে দেখতে পেয়েই স্থানীয় থানায় খবর দেওয়া হয় এবং পরবর্তীতে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বর্তমানে অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে আচমকা মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে প্রবেশ করার পেছনে তার উদ্দেশ্য কি, সেটাই বড় প্রশ্ন।

তবে সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ায় জোড়া খুনের মামলার পর এদিনের এই ঘটনাটি নিরাপত্তার বিষয়টিকে কাঠগড়ায় তুলে দিয়েছে। যেখানে মুখ্যমন্ত্রীকে জেড ক্যাটাগরি নিরাপত্তা দেওয়া হয়, সেখানে তা ভেদ করে অভিযুক্ত ব্যক্তি যদি বাড়িতে প্রবেশ করতে পারে, তবে রাজ্যে মানুষের নিরাপত্তা কোথায়, এই নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন জেগে উঠেছে।

শুধু তাই নয়, গতকাল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির নিকটবর্তী বেশ কয়েকটি সিসিটিভি ক্যামেরাও বিকল ছিল বলে জানা গিয়েছে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই আশঙ্কা দেখা দিয়েছে; ওই ব্যক্তিটি কি শুধুমাত্র শখের বসেই পাঁচিল টপকেছে, নাকি এর পেছনে তার কোন গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে, বর্তমানে অবশ্য এ সকল প্রশ্নগুলি তদন্ত করে দেখছে প্রশাসন।

Related Articles