টাইমলাইনফুটবলখেলা

স্পেনের রাস্তায় দুর্ঘটনার শিকার রোনাল্ডোর বহুমূল্যবান স্পোর্টস কার, আশঙ্কায় ভক্তকুল

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: দুর্ঘটনার শিকার রোনাল্ডোর শখের বুগেত্তী ভেরন। সোমবার স্পেনের মায়র্কায় একটি বাড়ির দেওয়ালে ধাক্কা মারে রোনাল্ডোর এই বিলাসবহুল গাড়িটি যার দাম ১.৭ মিলিয়ন পাউন্ড। তবে জানা গেছে সৌভাগ্যবশত রোনাল্ডো সেই মুহূর্তে ওই গাড়িতে ছিলেন না সে গাড়িতে ছিলেন রোনাল্ডোর একজন কর্মচারী। এখন অফ সিজনে পরিবারকে নিয়ে স্পেনেই সময় কাটাচ্ছেন পর্তুগিজ মহাতারকা।

বুনয়েল টাউন হলের স্থানীয় পুলিশ এবং সিভিল গার্ড অফিসার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। গোটা ঘটনাস্থলটি পর্যবেক্ষণ করে তারা তাদের রিপোর্টে জানিয়েছেন যে যে ড্রাইভার গাড়ি চালাচ্ছিলেন তার কোনও চোট আঘাত লাগেনি কিন্তু গাড়ির সামনের দিকটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া যে বাড়ির দেওয়ালে গাড়ি ধাক্কা মেরেছে সেই বাড়ির দেওয়ালটা অনেকটি ভেঙে গেছে। রোনাল্ডো স্পোর্টস কার প্রীতির কথা কারো অজানা নয়। তার কালেকশনে বহুমূল্যবান গাড়ি গুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল এই বুগেত্তী ভেরনটি।

দীর্ঘ মরসুমের শেষে এখন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন ৩৭ বছর বয়সী পর্তুগিজ মহাতারকা। বয়স এখনও তার পারফরমেন্সে পুরোপুরি থাবা বসাতে পারেনি। গত মরশুমে দেশ এবং ক্লাবের মিলিয়ে তিনি মোট ৩২ টি গোল করেছেন। কিন্তু খুব একটা ভালো ফর্মে নেই তার ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং তার দেশ পর্তুগাল। টেনেটুনে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন করেছে তার দেশ। তারপর নেশনস লীগে তারা এখন নিজেদের গ্রুপে দ্বিতীয় স্থানে আছেন স্পেনের পেছনে। অপরদিকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে আশা করা হচ্ছিল তাঁর আগমনের পর ফের ট্রফি জয়ের আঙিনায় ফিরবে কিন্তু সেটা বাস্তবে হয়নি গত চার বছরের মত সদ্যসমাপ্ত মরশুমেও ট্রফিলেস ছিল ম্যানচেস্টারের ক্লাবটি। তার সাথে সাথে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।

আসন্ন মরসুমে ডাচ কোচ এরিক টেন হাগের কোচিংয়ে নতুন যুগ শুরু হতে চলেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। তারা যখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্য যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়েছিল তখন অনেকেই মনে করেছিল রোনাল্ডো হয়তো আর ক্লাবে থাকবেন না। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রেকর্ড গোলদাতা যদি এক মরশুম চ্যাম্পিয়নস লিগ ছাড়াই কাটান তাহলে সেটা তার পক্ষে খুব একটা গৌরবময় পর্ব হবে না। কিন্তু এখন মনে করা হচ্ছে হয়তো আরো একটা মরশুম ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে থেকে যাবেন তিনি। একজন ব্যার্থ তারকা হিসেবে নিজের পুরনো ক্লাবকে ফের ছেড়ে চলে যেতে নারাজ সিআরসেভেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে তার পুরনো গৌরব ফিরিয়ে দেওয়ায় এখন তার একমাত্র লক্ষ্য। সেই সঙ্গে নভেম্বরে দেশের হয়ে বিশ্বকাপেও তিনিই এখনও পর্তুগাল দলের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র। আর কয়েক মাস পরেই আটত্রিশে পা দিয়ে চলা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর কাছেই মরশুমটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।

Related Articles

Back to top button