টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

রোহিত করোনা আক্রান্ত হওয়ায় ভারতীয় দলে এলেন ময়ঙ্ক আগরওয়াল, নেতৃত্ব দিতে পারেন এই ক্রিকেটার

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ভারতীয় দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা করোনার কবলে পড়েছেন। শনিবার বাকিদের মতো তারও র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করা হয়েছিল। ওই পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে তিনি করোনা পজিটিভ। আপাতত রোহিত শর্মা বিসিসিআই মেডিকেল টিমের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন। তাকে হোটেলে আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে। এর আগে গত বছরের শেষে চোটের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর মিস করেছিলেন রোহিত। এবার আরও একবার বিদেশের মাটিতে তার টেস্ট খেলতে না নামার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে বিসিসিআই ওপেনার ময়ঙ্ক আগারওয়ালকে পয়লা জুলাই থেকে এজবাস্টনে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নির্ধারিত পঞ্চম টেস্ট ম্যাচের জন্য ভারতীয় দলে যোগ দেওয়ার জন্য ডেকে নিয়েছেন। আজই তিনি বিরাট কোহলিদের সাথে যোগ দেবেন। চোটের জন্য এই সিরিজে নেই লোকেশ রাহুলও। যদি সত্যি সত্যিই শেষপর্যন্ত রোহিত শর্মা মাঠে নামতে না পারেন তাহলে শুভমান গিল এর সঙ্গে ওপেন করবেন ময়ঙ্কই।

বিসিসিআই এখনই তাড়াহুড়ো করে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে নারাজ। আজকের দিনটা নিয়ে এখনো চারদিন হাতে আছে টেস্ট ম্যাচ শুরু হওয়ার। তারমধ্যে রোহিত শর্মা করোনার কবল থেকে মুক্তি পেলে ম্যাচে কে ওপেন করবেন গিলের সাথে তা নিয়ে আর কোন প্রশ্ন উঠছে না। কিন্তু যদি একান্তই রোহিত শর্মা খেলতে না পারেন তাহলে ওপেনারের সাথে সাথে আরও একটা বড় প্রশ্ন উঠে যাবে যে কে অধিনায়কত্ব করবেন এই ভারতীয় দলের। লোকেশ রাহুল অনুপস্থিত, তাই নতুনদের মধ্যে অধিনায়কত্বের জন্য হাতে থাকছেন যশপ্রীত বুমরা এবং রিশভ পন্থ। তবে একটা আলাদা সম্ভাবনার কথাও শোনা যাচ্ছে। শেষ পর্যন্ত হিটম্যান যদি মাঠে নামতে না পারেন তাহলে সিরিজের শেষ ম্যাচে নেতৃত্ব দিতে পারেন প্রাক্তন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তার নেতৃত্বেই সিরিজে ২-১ ফলে এগিয়ে গিয়েছিল ভারত।

গতবারের চারটি টেস্ট ম্যাচে ভারতের হয়ে সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন রোহিত। চার ম্যাচে সেঞ্চুরিসহ ৩৬৮ রান করেন তিনি। তার গড় ছিল ৫২.২৭। এই সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে ভারতীয় দল। ২০০৭ সালে ভারতীয় দল ইংল্যান্ডের মাটিতে শেষ টেস্ট সিরিজ জিতেছিল। ১৫ বছর পর ভারতের সামনে ফের সিরিজ জেতার হাতছানি। এছাড়া বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দিক থেকেও শেষ ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Related Articles

Back to top button