টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিশেষ

লোকনাথ বাবার তিরোধান দিবসে মেনে চলুন এই নিয়মগুলো, পাবেন ওনার অশেষ আশীর্বাদ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ৩ জুন ২০২২,বাংলায় ১৯ জৈষ্ঠ্য বাবা লোকনাথের তিরোধান উৎসব। বাংলার ঘরে ঘরে কম -বেশি সকলেই লোকনাথ পুজো করে থাকেন। পুরাণেও বলা আছে, বাবা লোকনাথ স্বয়ং শিবের অবতার, অর্থাৎ তার মধ্যেই ভগবান শিবের উপস্থিতি রয়েছে। ‘রণে বনে জলে জঙ্গলে যেখানেই বিপদে পড়বে আমাকে স্মরণ করিও আমি তোমাকে রক্ষা করিব”- একথা বলেছিলেন বাবা লোকনাথ। বিপদে পড়লেই তিনি সকলকে রক্ষা করবেন। চলতি বছরের শুক্রবার অর্থাৎ আজ লোকনাথ বাবার পুজো। পুজো করতে বসার আগে জেনে নিন ভগবানের আশীর্বাদ পাওয়ার জন্য সারাদিন কী কী করবেন? আর কোন কাজ ভুলেও করবেন না৷

লোকনাথ বাবার পুজোর উপকরণ:

ফুল: লোকনাথ পুজোর প্রধান ফুল নীল শাপলা বা নীল শালুক এবং যে কোনো সাদা ফুল ও বেলপাতা।
ফল: লোকনাথ বাবাকে তুষ্ট করতে চাইলে পুজোর উপাচারে তালশাঁস ও কালোজাম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
মিষ্টান্ন ভোগ: প্রয়োজন মিছরি, তালমিছরি, যে কোনও সাদা মিষ্টি।

এই দিন কোন কাজগুলির মাধ্যমে লোকনাথ বাবাকে সন্তুষ্ট করে বিপদ মুক্ত হওয়া যায়:

• এই দিন সবার আগে দেবাদিদেব মহাদেবের পুজো করতে হবে। মহেশ্বররের আশীর্বাদ পেলেই বাবা লোকনাথের আশীর্বাদ পাওয়া যাবে।
• এই পুজোর দিন নীল শাপলা ফুল লোকনাথ বাবার চরণে অর্পণ করতে হবে।
• মিছরি দিয়ে পুজো করার পর সেই মিছরি বাচ্চাদের দান করতে হবে।
• কারও জন্মকুণ্ডলীতে যদি বিষযোগ, দারিদ্রযোগ থেকে থাকে, তা হলে অবশ্যই এই দিন লোকনাথ বাবার পুজো করুন। এই যোগগুলো থাকলে প্রচুর পরিমাণে আর্থিক সমস্যা দেখা দেয়। যদি লোকনাথ বাবার পুজো করা যায়, তা হলে শুভ ফল পাওয়া যাবে খুব তাড়াতাড়ি।
• “জয় বাবা লোকনাথ। জয় ব্রহ্ম লোকনাথ। জয় শিব লোকনাথ। জয় গুরু লোকনাথ।” এই মন্ত্র উচ্চারণের মাধ্যমে প্রতি সোমবার যদি লোকনাথ বাবার পুজো করা যায়, তা হলে বাবার আশীর্বাদ ও সকল বিপদ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

Related Articles

Back to top button