ছবিটাইমলাইনবিনোদন

৫৫ তেও ‘ফিট অ্যান্ড হট’, সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় সমুদ্রসৈকতে দৌড় লাগালেন মিলিন্দ! তুমুল ভাইরাল ছবি

বাংলাহান্ট ডেস্ক: মিলিন্দ সোমানকে (milind soman) কে না চেনেন। ‘মেড ইন ইন্ডিয়া’ মিউজিক ভিডিওর মাধ‍্যমে তুঙ্গে ওঠে তাঁর জনপ্রিয়তা। আশি ও নব্বইয়ের দশকে অন‍্যতম ‘হট’ মডেল হিসাবে পরিচিত ছিলেন তিনি। কেরিয়ারের পাশাপাশি তাঁর ব‍্যক্তিগত জীবন নিয়েও মানুষের কৌতূহল কম নেই। সুপার মডেল মধু সাপ্রের সঙ্গে তাঁর নগ্ন ফটোশুট এখনও মনে রেখেছেন অনেকেই। তাঁর সঙ্গে বেশ কয়েক বছর সম্পর্কেও ছিলেন মিলিন্দ।

এবার সেই ফটোশুটেরই স্মৃতি ফের একবার তাজা হয়ে উঠল মিলিন্দের ৫৫ তম জন্মদিনে। এই বিশেষ দিনে সোশ‍্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি শেয়ার করেছেন এই মডেল অভিনেতা। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় সমুদ্রসৈকত ধরে ছুটছেন তিনি। ছবিটি পোস্ট করে নিজেকে নিজেই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মিলিন্দ।

বলা বাহুল‍্য, ছবি পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নেটদুনিয়ায়। নানা রকম মিমও তৈরি হচ্ছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। এক ব‍্যক্তি পুরনো স্মৃতি উসকে মিলিন্দ ও মধু সাপ্রের সেই আইকনিক নগ্ন ফটোশুটের ছবি ও মডেলের নিজের পোস্ট করা ছবিদুটি কোলাজ করে শেয়ার করেছেন। লিখেছেন, ‘শুরুটা হয়েছিল এভাবে, এখন আমরা এখানে’।

এই মুহূর্তে স্ত্রী অঙ্কিতা কোনওয়ারের সঙ্গে গোয়ায় রয়েছেন মিলিন্দ। মাঝে মাঝেই গোয়ার সমুদ্র সৈকতে দৌড়ের ছবি শেয়ার করেন মডেল অভিনেতা। মিলিন্দের জন্মদিনের এই বিশেষ ছবিটিও তুলে দিয়েছেন স্ত্রী অঙ্কিতা কোনওয়ার। তুমুল ভাইরাল এখন এই ছবি।

প্রসঙ্গত, মধু সাপ্রের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এক ফরাসী অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান মিলিন্দ। বিয়েও করেন দুজনে। কিন্তু এই বিয়ের মেয়াদ ছিল মাত্র তিন বছর। এরপরেও বহু মহিলার সঙ্গে লিভ ইন সম্পর্কে থেকেছেন মিলিন্দ। রক অন ছবির অভিনেত্রী শাহানা গোস্বামীর সঙ্গেও সম্পর্কে জড়ান তিনি। দুজনের বিয়েও হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু তাঁর সঙ্গে থাকাকালীনই মডেল দীপনিতা শর্মার ওপর মন মজে মিলিন্দের। তবে বলা বাহুল‍্য সেই সম্পর্কও টেকেনি বেশিদিন। এরপরেই শোনা যায় একজন তরুনী বিমান সেবিকার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন মিলিন্দ। দুজনের বয়সে ৩০ বছরের পার্থক‍্য। তাঁদের সম্পর্কের কথা জানা গেলেও কেউ ভাবতে পারেননি যে অঙ্কিতা কোনওয়ারকেই বিয়ে করতে চলেছেন তিনি। বয়সের অনেক পার্থক‍্য হওয়া সত্ত্বেও দুজনে সুখেই সংসার করছেন।

Back to top button