fbpx
টাইমলাইনবিনোদনরাজনীতি

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ৫১ লক্ষ অর্থসাহায‍্য মিমির

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সারা বিশ্বে ব‍্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে মারাত্মক করোনা ভাইরাস। একের পর এক দেশ গ্রাসে চলে যাচ্ছে এই ভয়ংকর ভাইরাসের। বিশ্ব স্বাস্থ‍্য সংস্থা বা ওয়ার্ল্ড হেল্থ অরগানাইজেশন ইতিমধ‍্যেই ‘মহামারি’ ঘোষনা করেছে এই বিপর্যয়কে। চিন, ইতালি, ইরান পেরিয়ে ভারতেও হানা দিয়েছে প্রাণঘাতী করোনা। আর তার ভয়াবহতা থেকে বাঁচতে আঁটঘাট বেঁধে তৈরি কেন্দ্রীয় ও রাজ‍্য সরকারগুলি।
ইতিমধ‍্যেই লকডাউন ঘোষনা হয়ে গিয়েছে বেশ কিছু রাজ‍্যে। বাইরে বেরোনোয় কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী মোদী ঘোষনা করেছেন আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত পুরো দেশেই মানা হবে লকডাউন। এই অবস্থায় সকলেই রয়েছেন গৃহবন্দি। ব‍্যতিক্রম নন তারকারাও। বলিউড থেকে টলিউড সব তারকারাই হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।


ব‍্যতিক্রম নন সাংসদ তথা অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। লন্ডন থেকে ফিরে গৃহবন্দি হয়েই রয়েছেন তিনি। এবার করোনা আক্রান্তদের সাহায‍্যার্থে ৫১ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষনা করলেন মিমি। সাংসদ তহবিল থেকে ৫০ লক্ষ ঔ ব‍্যক্তিগত ভাবে ১ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষনা করেছেন তিনি। যাদবপুর লোকসভার অন্তর্গত হাসপাতালগুলিতে করোনা আক্রান্তদের জন‍্য আইসোলেশন সেন্টার ও কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরি করার জন‍্য এই টাকাটা মুখ‍্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা হবে। সেইসঙ্গে সকলেই যাতে উপযুক্ত চিকিৎসা পায় সেইদিকেও নজর রাখবেন মিমি।


মিমি একা নন, এর আগে সাংসদ তহবিল থেকে অভিনেতা তথা সাংসদ দেবও এক কোটি টাকা ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট এমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ডে দান করেন। ঘাটালের সব হাসপাতালগুলিতে কর্মরত স্বাস্থ‍্যকর্মীরা যাতে মাস্ক, স‍্যানিটাইজার সড় আব‍্যশক সব জিনিসপত্র পায় তার জন‍্যই এই টাকা দান করেন দেব। পাশাপাশি হাসপাতালগুলিতে আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করার কাজেও এই টাকা ব‍্যবহার হবে বলে জানা গিয়েছে।

Back to top button
Close
Close