টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘সেন্ট্রাল জেলে জমবে সরস্বতী পুজো, দেবী আরাধনায় দুই ভট্টাচার্য, ফিতে কাটবেন পার্থ!’ কটাক্ষ মীনাক্ষীর

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আজ সরস্বতী পুজো। বিদ্যার দেবীর আরাধনায় মেতে উঠবে গোটা বঙ্গ। অন্যদিকে বিগত কয়েকমাস থেকে নিয়োগ দুর্নীতি (Recruitment Scam) মামলায় জেলবন্ধি খোদ এ রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। শুধুই কি তাই! শ্রীঘরেই রয়েছেন শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। তাঁদের দুর্গাপুজো থেকে শুরু করে কালীপুজো, ভাইফোঁটা, নতুন বছর সবটাই কেটেছে জেলে। সেই ধারাই বজায় রেখে এবার সরস্বতী পুজোটাও জেলবন্দি দশাতেই কাটাতে চলেছেন শিক্ষা দুর্নীতির এই মূল অভিযুক্তগণ। এদিন বনগাঁর প্রকাশ্য সভা থেকে এদের তীব্র কটাক্ষ বাণ ছুড়লেন সিপিএমের যুবনেত্রী (CPM Youth Leader) মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায় (Minakshi Mukherjee)।

এদিন গোপালনগরের প্রকাশ্য জনসভা থেকে তোপ দেগে মীনাক্ষী বলেন, ‘এমনিতে সরস্বতী পুজোর সময়ে পাড়ায় পাড়ায় পুরোহিতদের পাওয়া দায় হয়ে যায়। ঠাকুরমশাইকে অনেকসময়ে বগলদাবা করে তুলে এনে বসিয়ে দেওয়া হয় মণ্ডপে। কিন্তু সেন্ট্রাল জেলে এবার সরস্বতী পুজো দারুণ জমবে। ওখানে পুরোহিতের অভাব নেই। দুই ভটচায বামুন আছেন, সুবীরেশ আর মানিক। ওঁরা পুজো করে দেবেন আর ফিতে কেটে দেবেন পার্থ।’

এখানেই থেমে যাননি ডিওয়াইএফআই রাজ্য সম্পাদক। সেইসঙ্গে তৃণমূলকেও একহাত নিয়ে তিঁনি বলেন, ‘কেউকেউ এখানে আমাদের লোকদের হুমকি দিচ্ছে, বেশি ট্যাঁ ফোঁ করলে জব কার্ড বাতিল করে দেবে, আবাস যোজনা থেকে নাম বাদ দিয়ে দেবে। আমরাও তাদের বলছি, বেশি ট্যাঁ ফো করবে না, আমরাও টেংরি খুলে নিতে জানি।’ এদিন দলনেত্রীর সভায় উপচে পরা ভীড়ও হয়েছিল।

minakshi

অন্যদিকে, মীনাক্ষীকে আক্রমণ করে পাল্টা বাগদার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস বলেন, ‘বাংলার মানুষ গণতান্ত্রিকভাবে সিপিএমের টেংরি খুলে নিয়েছে। বিধানসভায় শূন্য। তাই হতাশায় এসব বলছেন।’

Related Articles