টাইমলাইনবিনোদন

Miss India ফাইনালিস্ট থেকে IAS অফিসার, সিভিল সার্ভিসে ৯৩তম স্থান পেলেন ঐশ্বর্য!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: ‘বিউটি উইথ ব্রেন’, এই নামেই সোশ‍্যাল মিডিয়ায় জয়জয়কার চলছে বিখ‍্যাত মডেল তথা মিস ইন্ডিয়া (miss india) ফাইনালিস্ট ঐশ্বর্য শ‍্যোরানের (aishwarya sheoran)। নেটদুনিয়ায় জোর প্রশংসা চলছে ঐশ্বর্যের। সৌন্দর্যের পাশাপাশি পড়াশোনার দিক দিয়েও প্রথম স্থানে রয়েছেন তিনি।
ইউপিএসসি সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় সারা ভারতের মধ‍্যে ৯৩ তম স্থান অর্জন করেছেন ঐশ্বর্য। বিজ্ঞানের ছাত্রীর এমন কৃতিত্বে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছে নেটিজেনরা। মিস ইন্ডিয়ার তরফে সোশ‍্যাল মিডিয়ায় জানানো হয়েছে এই খবর।


লেখা হয়েছে, ‘ঐশ্বর্য শ‍্যোরান ২০১৬ ফেমিনা মিস ইন্ডিয়ার ফাইনালিস্ট, ২০১৬ ক‍্যাম্পাস প্রিন্সেস দিল্লি, ২০১৫ ফ্রেশ ফেস দিল্লির বিজেতা সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় সারা ভারতের মধ‍্যে ৯৩ তম স্থান অধিকার করেছেন। এই কৃতিত্বের জন‍্য ওনাকে শুভেচ্ছা।’

ঐশ্বর্য জানান, প্রাক্তন মিস ওয়ার্ল্ড তথা অভিনেত্রী ঐশ্বর্য রাইয়ের নামের সঙ্গে মিলিয়ে তাঁর নাম রেখেছিলেন। তিনি আরও বলেন, তাঁর মা চেয়েছিলেন তিনি মডেলিং জগতে প্রবেশ করুন। তিনি এখনও তাঁকে মিস ইন্ডিয়ার খেতাব জিততে দেখতে চান বলেও জানান ঐশ্বর্য। তিনি আরও জানান, সিভিল সার্ভিস চিরদিন ধরেই তাঁর স্বপ্ন ছিল।


সেই কারনে মডেলিং থেকে কিছুদিনের বিরতি নিয়ে সিভিল সার্ভিসের জন‍্য প্রস্তুতি নিতে থাকেন ঐশ্বর্য। শেষ পর্যন্ত আইএএস হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হল তাঁর। ঐশ্বর্যর কথায়, “আমি ছোট থেকেই পড়াশোনায় ভাল ছিলাম। ইউপিএসসি পাশ করার জন‍্য কোনও কোচিং ক্লাসেও ভর্তি হইনি। ফোন সুইচ অফ করে ও সোশ‍্যাল মিডিয়ার থেকে দূরে সরে পড়াশোনা করতাম।”


প্রথমে বিজ্ঞানের ছাত্রী থাকলেও পরে দিল্লির শ্রীরাম কলেজ অফ কমার্সে ভর্তি হন ঐশ্বর্য। সোশ‍্যাল মিডিয়ায় প্রশংসার বন‍্যা বয়ে গিয়েছে তাঁর এই কৃতিত্বে। তিনি অন‍্যান‍্যদের কাছে নজির সৃষ্টি করলেন এমনটাই মনে করছেন নেটিজেনরা।

Back to top button