টাইমলাইনবিনোদন

সৃজিতকে চুমু! রেগে আগুন মিথিলা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সৃজিতের হাতেই উঠছে এবারের জাতীয় পুরস্কার। ঘোষনা আগেই হয়ে গিয়েছিল। অপেক্ষা ছিল শুধু দিনটার। সেই প্রতীক্ষারও অবসান ঘটল। গত ২৩ ডিসেম্বর দিল্লিতে ৬৬তম জাতীয় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ‘এক যে ছিল রাজা’ ছবির জন্য পুরস্কার জেতেন পরিচালক সৃজিত মুখার্জি।

ঘিয়ে ও খয়েরি রঙের পাঞ্জাবি পরে খাঁটি বাঙালি সেজে পুরস্কার নিতে মঞ্চে ওঠেন সৃজিত। উপ-রাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডুর হাত থেকে পুরস্কার নেন তিনি। হাততালিতে ভরে ওঠে গোটা কক্ষ। এই নিয়ে তৃতীয়বারের জন্য জাতীয় পুরস্কার পেলেন সৃজিত। এক যে ছিল রাজার ঝুলিতে ঢুকল মোট ২৩টি পুরস্কার। তবে জাতীয় পুরস্কার তিনি উৎসর্গ করেছেন তাঁর ছবির অভিনেতা যিশু সেনগুপ্ত ও মেকআপ আর্টিস্ট সোমনাথ কুণ্ডুকে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সৃজিতের করা পোস্টেও উপচে পড়ছে অনুরাগী ও শুভাকাঙ্খীদের শুভ কামনায়। কমেন্ট করেছেন যীশু সেনগুপ্তও। সৃজিতকে শুভেচ্ছা জানিয়ে চুমুর ইমোজিও পোস্ট করেন তিনি। উত্তরে পরিচালক হেসে বলেন, তাঁদের এই আদর-ভালবাসা দেখে কিন্তু মিথিলার রাগ হচ্ছে। বলা বাহুল্য যীশু-সৃজিতের এই খুনসুটি বেশ উপভোগ করছেন নেটিজেনরাও।

প্রসঙ্গত, সৃজিতের এই পুরস্কার প্রাপ্তিতে স্ত্রী মিথিলাও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাঁকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচালকের পোস্টে হৃদয়ের ইমোজি দিয়ে কমেন্ট করেন তিনি। সদ্য সদ্যই বিয়ে হয়েছে তাঁদের। বিয়ের পরপরই এমন একটা প্রাপ্তিতে খুশি দুজনেই। অবশ্য পুরস্কারের ঘোষনা হয়েছিল আগেই। শুধু সৃজিত নয়, ‘কেদারা’ ছবির জন্য বিশেষ জুরি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন পরিচালক ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত। সেরা সংলাপের পুরস্কার পেয়েছে চূর্ণী গাঙ্গুলীর ‘তারিখ’। এছাড়াও ফেলুদাকে নিয়ে বানানো তথ্যচিত্র ‘ফিফটি ইয়ার্স অফ রে’স ডিটেকডিভ’-এর জন্য প্রথম ডেবিউ পরিচালক হিসাবে জাতীয় পুরস্কার পেলেন সাগ্নিক চট্টোপাধ্যায়। ছবির পাশাপাশি গানের জগতেও জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন বাঙালি। ‘পদ্মাবত’ ছবির ‘বিনতে দিল’ গানের জন্য সেরা সঙ্গীতশিল্পীর পুরস্কার পেয়েছেন অরিজিত সিং। সব মিলিয়ে এবার জাতীয় পুরস্কারে বাঙালিরই জয়জয়কার।

Related Articles

Back to top button