টাইমলাইনবিনোদন

২০ বছর আগে দত্তক নিয়েছিলেন ডাস্টবিনে ফেলে যাওয়া শিশুকন্যাকে, মিঠুনের সেই মেয়েরই অভিষেক বলিউডে

বাংলাহান্ট ডেস্ক:  বলিউডে পা রাখতে চলেছেন মিঠুন চক্রবর্তীর পালিতা কন্যা দিশানী চক্রবর্তী।

দীর্ঘদিন আগে দিশানীকে দত্তক নিয়েছিলেন অভিনেতা। একদম ছোট থেকে তাঁকে বড় করেছেন মিঠুন। সেই মেয়েই এবার বলিউডে পা রাখতে চলেছেন।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০ বছর আগে দিশানীকে দত্তক নিয়েছিলেন মিঠুন। সর্বভারতীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম দাবি করে এই খবর। জানা গিয়েছে, ২০ বছর আগে একটি ডাস্টবিনে একটি কন্যাসন্তানকে পাওয়া গিয়েছিল। শিশুটির অবিরাম কান্নার শব্দ শুনে কৌতূহলী মানুষের ভিড় জমে যায় আশেপাশে। এক সমাজসেবী সংস্থা সেখান থেকে শিশুকন্যাটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় নিজেদের সংস্থায়। সেখান  থেকেই খবর পেয়ে ওই সংস্থায় যান মিঠুন। শিশুটিকে দেখে তাঁর এতই মায়া হয় যে তিনি তৎক্ষণাৎ সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন শিশুটিকে দত্তক নেবেন। তাকে বাড়ি নিয়ে আসেন মিঠুন। তারপর কাগজপত্র তৈরি করে স্ত্রী যোগিতা বালির সঙ্গে শিশুকন্যাটিকে দত্তক নেন মিঠুন।

নিজেকে পিতার পরিচয় দিয়ে মিঠুন দত্তক কন্যার নাম রাখেন দিশানী। দিশানী ছাড়াও মিঠুনের রয়েছে আরও তিন ছেলে মেয়ে, মিমো, উস্মে ও নানশি। তাঁদের সঙ্গেই বড় হতে থাকে দিশানী। কখনওই তাঁকে আলাদা করে দেখা হয়নি। এখন নিউইয়র্কের একটি ফিল্ম অ্যাকাডেমি থেকে পড়াশোনা করছেন দিশানী। তার মধ্যেই জানা গিয়েছে অভিনয়ে হাতেখড়ি হতে চলেছে তাঁর।

জীবনে বহুবার বহু সমাজকল্যাণ মূলক কাজে এগিয়ে এসেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। কিন্তু তাঁর সেইসব কাজ একবারের জন্যও প্রচারের আলোয় আসেনি। বরং একবার চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে তাঁর নাম জড়িয়ে যাওয়ায় সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে অভিনেতাকে। এখনও সেই কলঙ্ক বহন করছেন মিঠুন।

Back to top button