টাইমলাইনভারত

Whatsapp এর উপর কড়া মুডে মোদী সরকার, CEO কে চার পাতার চিঠি লিখে চাওয়া হলো জবাব

হোয়াটসঅ্যাপের (Whatsapp) পলিসি নিয়ে চর্চা আরো তুঙ্গে পৌঁছেছে। নতুন নীতিতে হোয়াটসঅ্যাপ তাদের ইউজারদের ডাটা ফেসবুক ও অন্যান্য প্রোডাক্টস এর সাথে শেয়ার করবে বলে খবরের উপর বিতর্ক শুরু হয়েছে। এর মধ্যে ইলেক্ট্রনিকস মন্ত্রণালয় থেকে হোয়াটসঅ্যাপের CEO কে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে নীতিতে যে পরিবর্তন নেওয়ার উপর চর্চা চলছে তা প্রত্যাহার করার আদেশ জারি করা হয়েছে। উইল ক্যাথার্টকে ৪ পাতার চিঠি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। একই সাথে সরকার হোয়াটসঅ্যাপের গোপনীয়তা, ডেটা ট্রান্সফার ও শেয়ারিং পলিসি নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ভারত সরকার স্পষ্ট বলেছে, এক তরফ পরিবর্তন উচিত নয় এবং এটা মেনে নেওয়া যায় না। চিঠিতে লেখা হয়েছে, এই ধরণের সিদ্ধান্ত গোপনীয়তা নিয়ে ভারতীয় নাগরিক চিন্তায় ফেলেছে। মন্ত্রণালয় হোয়াটসঅ্যাপকে পুনরায় তাদের সিদ্ধান্তের উপর বিচার বিবেচনা করার নির্দেশ দিয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য ভারতীয়দের উচিত সন্মান করতে হবে তাই একতরফা কোনো নিয়ম মেনে নেওয়া যাবে না।ইলেক্ট্রনিকস এন্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি মিনিস্ট্রি উইল ক্যাথার্টকে কড়া ভাষায় লিখেছে- হোয়াটসঅ্যাপের সবথেকে বেশি ইউজার ভারতে আছে, ভারত হোয়াটসঅ্যাপের জন্য একটা অনেক বড়ো বাজার। চিঠিতে আরো লেখা হয়েছে, ভারতীয় নাগরিকদের নিজের গোপনীয়তা রক্ষার সার্বভৌম অধিকার আছে সেটা নিয়ে আপস করা যাবে না।

জানিয়ে দি, হোয়াটসঅ্যাপ ইউরোপের জন্য আলাদা পলিসি নীতি এবং ভারতীয়দের জন্য আলাদা নীতি লাগু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ভারতীয়দের জন্য এমন বৈষম্য করা হচ্ছে তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে ইলেক্ট্রনিকস এন্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি মন্ত্রণালয়।

Back to top button