fbpx
টাইমলাইনভারত

কৃষক,শ্রমিকের পর এবার মধ্যবিত্তের সাহায্যে এগিয়ে এল মোদি সরকার

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিশ্বের বৃহত্তম লকডাউনে ভারতের ১.৩ বিলিয়ন মানুষকে তিন সপ্তাহের জন্য ঘরে বসে থাকতে বলেছেন। এশিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতিটি বন্ধ এবং লক্ষ লক্ষ অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল মানুষ বর্তমানে কর্মহীন। যার ফলে চরম অর্থনৈতিক সংকট আশা করছেন অনেকেই। সেই অর্থনৈতিক সংকট থেকে সাধারন মানুষকে রক্ষা করার দায়িত্ব নিয়ে ইতিমধ্যেই সরকার অনেকগুলি অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শ্রমিক, কৃষক থেকে শুরু করে অনেকেই সাহায্য পেয়েছেন সরকারের। কিন্তু সেভাবে মধ্যবিত্তের জন্য কোনো পরিকল্পনা সরকার নেয় নি বলে অভিযোগ ছিল। এবার মধ্যবিত্তের জন্য অভিনব উদ্যোগ নিল সরকার।

আয়কর দপ্তর জানিয়েছে যে, আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার পর জমা থাকা অতিরিক্ত টাকা এখনো যারা ফেরত পাননি তারা খুব শিগগিরই তাদের প্রাপ্য অর্থ ফেরত পাবেন। ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত রিফান্ড আয়করদাতাদের অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হবে ওই টাকা। পাশাপাশি আয়কর দপ্তর জানিয়েছে , জিএসটি ও কাস্টম ক্ষেত্রেও যে টাকা রিফান্ড পাওয়ার কথা সেই টাকাও অতি দ্রুত অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে সব কিছুর নিষ্পত্তি করা হবে। কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফ থেকে সমস্ত বিভাগগুলিকে নির্দেশ পাঠানো হয়েছে আয়কর দপ্তরকে।

করোনার কারনে লকডাউনের যাওয়ার শুরুতেই আয়কর সম্পর্কিত আরো বেশ কিছু ঘোষনা করেছিল অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। সেগুলিও মধ্যবিত্তকে এই মুহুর্তে বেশ কিছুটা স্বস্তি দিচ্ছে,
২০১৮-১৯ অর্থ বর্ষের আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ বাড়িয়ে করা হল ৩০ জুন। দেরি হলে সুদের হার ১২ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৯% হারে দিতে হবে।

আধারের সঙ্গে প্যান সংযুক্তিকরণের সময়সীমা ৩১ মার্চ থেকে বাড়িয়ে করা হল ৩০ জুন।

টিডিএস রিটার্ন জমা দেওয়ার শেষ দিন না বদলালেও টিডিএস দেরি কই জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে আগের ১৮ শতাংশ সুদ কমিয়ে করা হয়েছে ৯ শতাংশ।

৫ কোটি টাকার কম বার্ষিক লেনদেন সংস্থাগুলির ক্ষেত্রে আয়কর রিটার্নের ক্ষেত্রে সুদ দিতে হলেও দিতে হবেনা লেট ফি।

বর্তমানে নতুন সংস্থার নথিভুক্তিকরণের ক্ষেত্রে এক বছরের মধ্যে ডিক্লারেশন বা ঘোষণাপত্র দিলেই হবে। আগে যা ছিল ৬ মাস

মার্চ-এপ্রিল-মে জিএসটি জমা দেওয়ার সময়সীমা বেড়ে হয়েছে ৩০ জুন।

 

Back to top button
Close
Close