টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারত

Aadhar-র সঙ্গে আজই যোগ করুন আপনার পেনশন অ্যাকাউন্ট, নাহলে বঞ্চিত হবে ৭ লক্ষ টাকা থেকে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ করোনা কালের কথা মাথায় রেখে সরকারি কর্মচারীদের জন্য বেশকিছু সুবিধা প্রদান করেছে মোদি সরকার। একদিকে যেমন ১ জুলাই থেকে কেন্দ্র সরকারের সমস্ত কর্মচারীদের বর্ধিত ডিএ সহ বেতন প্রদানের অঙ্গীকার করেছে সরকার, তেমনি অন্যদিকে ইপিএফওর অন্তর্গত বীমা পলিসিতেও বেশ কিছু সুবিধা বাড়ানো হয়েছে। তবে আপনি কি জানেন, কেন্দ্র সরকারের নিয়ম অনুযায়ী আপনার পেনশন অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার নম্বর যুক্ত না করালে বীমা পলিসির সুবিধা পাবেন না আপনি।

কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, ১ জুনের পর থেকে ২০২০ সালের সামাজিক সুরক্ষা কোড আইনের ১৪২ ধারা অনুযায়ী সকল বেতনভুক্ত কর্মচারীকে তাদের পেনশন অ্যাকাউন্ট আধার নম্বরের সঙ্গে লিংক করাতে হবে। তা না করালে ইসিআর বা ইলেকট্রনিক চালান কাম রিটার্ন জমা করতে পারবেন না তারা। যার জেরে এমপ্লয়ি লিংকড ডিপোজিট ইনসিওরেন্সের কাভারেজ থেকেও বঞ্চিত হবেন কর্মীরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি করোনার কথা মাথায় রেখে ইএলডিআই কভারেজ অনেকটাই বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। আগে যেখানে একজন কর্মী মারা গেলে তার পরিবারকে সর্বোচ্চ ৬ লক্ষ টাকা দেওয়া হতো, তা এখন বাড়িয়ে করা হয়েছে সাত লক্ষ। অর্থাৎ এখন কোন কর্মী চাকরিরত অবস্থায় দুর্ঘটনা বা অন্য কোন কারণে মারা গেলে পরিবারকে দেওয়া হবে দুই থেকে সাত লক্ষ টাকা। কিন্তু আপনার পেনশন অ্যাকাউন্টের সঙ্গে ইউএন আধার নম্বর যোগ না করালে এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত থেকে যাবেন আপনি।

দেখে নিন কিভাবে আধার নম্বর যুক্ত করবেন অ্যাকাউন্টের সঙ্গেঃ

এক্ষেত্রে সবচেয়ে সুবিধাজনক বিষয়টি হলো সম্পূর্ণ কাজটি আপনি সারতে পারেন অনলাইনেই। এর জন্য কোন ব্যাংকের দোরগোড়ায় লাইন দিতে হবে না। শুধুমাত্র অনুসরণ করুন সহজ কয়েকটি ধাপঃ

★প্রথমে আপনাকে ইপিএফও ওয়েবসাইট www.epfindia.gov.in এ লগ ইন করতে হবে। এরপর ই-কেওয়াইসি লিংকে ক্লিক করুন।

★ এরপর আপনাকে আপনার আধার কার্ডের সঙ্গে যুক্ত মোবাইল নম্বরটি দিতে হবে।

★আপনার মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি নাম্বার পাঠানো হবে। ওটিপি আসার পর আপনাকে আপনার ১২ আধার নম্বরটি টাইপ করতে হবে। এরপরে পরের ধাপে পৌঁছানোর জন্য “প্রসিড” বাটনে ক্লিক করলেই আপনার প্রতিটি যাচাইকরণ সম্পন্ন হবে এবং আপনার আধার নম্বরের সঙ্গে পেনশন অ্যাকাউন্টটি যুক্ত করা যাবে।

Related Articles

Back to top button