টাইমলাইনবিনোদন

‘আমাকে হিংসে করবেন না’, কঙ্গনার টুইটকে ‘হাসির খোরাক’ বানিয়ে ছাড়লেন তৃণমূলের মহুয়া মৈত্র

বাংলাহান্ট ডেস্ক: ফের টুইট (tweet) সংঘাত তৃণমূল (tmc) সাংসদ মহুয়া মৈত্র (mohua moitra) ও বলিউড (bollywood) অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের (kangana ranawat) মধ‍্যে। কঙ্গনার তর্ক করার ‘ক্ষমতা’কে হাসির খোরাক বানিয়ে ছেড়েছেন মহুয়া মৈত্র। অভিনেত্রীর টুইটের পালটা জবাব তিনি দিয়েছেন আরো একটি টুইটে।

টুইটারে কঙ্গনার সক্রিয়তার কথা সকলেই জানেন। হেন কোনো বিষয় নেই যা নিয়ে নিজের মতামত প্রকাশ করেন না তিনি। এর জন‍্য বহুবার বিতর্কে জড়িয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু কঙ্গনা রয়েছেন কঙ্গনাতেই। উপরন্তু তাঁর এই তর্ক করার ক্ষমতাটাকে নাকি অনেকেই ঈর্ষা করেন, এমনটাই মনে করেন ‘কুইন’ অভিনেত্রী।

kangana 2 Bangla Hunt Bengali News
সম্প্রতি একটি টুইটে এমনি মনোভাব প্রকাশ পেয়েছে কঙ্গনার। তিনি লিখেছেন, ‘আমার যেকোনো বিষয়ে তর্ক করার ক্ষমতা, কিভাবে আমি অপর পক্ষের মনের উপরের পর্দাটা ভেদ করে ফেলি, X Rayর মতোই যেকোনো বিষয়ের গভীরে ঢুকে যাই সেটাকে অনেকেই ঈর্ষা করেন। ঈর্ষা বা রাগ করবেন না, নিজের বুদ্ধিমত্তাতে শান দিন, নিজের চারপাশটা বুঝুন।’

কঙ্গনার এই টুইট দেখেই হেসে কুটিপাটি তৃণমেল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। পালটা টুইটে অভিনেত্রীকে তাঁর কটাক্ষ, ‘একটা লম্বা দিনের পর এই হাসিটার খুব দরকার ছিল। সত‍্যি আর নেওয়া যাচ্ছে না।’ তবে এখনো মহুয়ার এই কটাক্ষের কোনো জবাব আসেনি কঙ্গনার দিক থেকে।

এটা অবশ‍্য প্রথম নয়, এর আগেও কঙ্গনাকে ঠুকে টুইট করতে দেখা গিয়েছিল মহুয়াকে। সুশান্ত সিং রাজপুত কাণ্ডের পর মুম্বই পুলিসের কর্মদক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কঙ্গনা। শুধু তাই নয়, মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করে শিবসেনার সঙ্গে সম্মুখ সমরে নেমে পড়েন তিনি।

সেই সময় তাঁকে মুম্বইতে ঢুকতে না দেওয়ার হুমকি দেওয়া হলে কেন্দ্রের তরফে Y+ ক‍্যাটেগরির নিরাপত্তা দেওয়া হয় কঙ্গনাকে। গোটা দেশের গুটিকতক কয়েকজন ভিভিআইপিই এই স্তরের নিরাপত্তা নেন। কঙ্গনাই প্রথম বলিউড তারকা যিনি এই তালিকায় নাম লেখান।

এই প্রসঙ্গেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও ‘কুইন’ অভিনেত্রীকে একহাত নিয়ে টুইট করেন মহুয়া মৈত্র। টুইটে তিনি লেখেন, ‘বলিউডের একজন টুইটার ব‍্যবহারকারীকে Y+ নিরাপত্তা কেন দেওয়া হচ্ছে যেখানে ভারতে প্রতি ১ লক্ষ জনসংখ‍্যা পিছু পুলিস রয়েছে মাত্র একজন এবং সারা বিশ্বে ৭১টি দেশের মধ‍্যে ভারতের স্থান সর্বনিম্ন পঞ্চম? অর্থের এর থেকে ভাল ব‍্যবহার আর হতে পারে না মিস্টার হোম মিনিস্টার?’

Back to top button