টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

আতঙ্ক বাড়াচ্ছে ‘মাঙ্কি পক্স”, রাজ্যের জন্য বিশেষ নির্দেশিকা জারি করল স্বাস্থ্য দফতর

বাংলাহান্ট ডেস্ক : কোভিড সংক্রমণের মধ্যেই বিশ্বজুড়ে এখন আলোচিত বিষয় হয়ে উঠেছে মাঙ্কি পক্স ভাইরাস। বিশ্বের একাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মাঙ্কি পক্স। বিশেষ করে ইউরোপীয়ান দেশগুলিতে মাঙ্কি পক্সের সংক্রমণ বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে কিছুদিন আগেই মাঙ্কি পক্স নিয়ে সমস্ত রাজ্যগুলিকে পরামর্শ এবং নির্দেশিকা দিয়েছিল কেন্দ্র। এবার এই সংক্রামক ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে নির্দেশিকা জারি করল রাজ্য সরকারও।

নির্দেশিকা জারি করে কী বলেছে রাজ্য সরকার? জানুন…

কোনও ব্যক্তির গায়ে যদি ফুসকুড়ি সহ মাঙ্কি পক্সের উপসর্গ দেখা যায়, সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত নজরদারিতে রাখতে হবে সেই ব্যক্তিকে।

যে সমস্ত দেশে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে সেখান থেকে যদি কোনও ব্যক্তি গত ২১ দিনে দেশে আসেন, সেক্ষেত্রে তার ওপর নজরদারি চালাতে হবে।

মাঙ্কি পক্সের লক্ষণ দেখা দিলে, সঙ্গে সঙ্গে সেই ঘটনা জানাতে হবে CMOH-কে।

মাঙ্কি পক্সে আক্রান্ত ব্যক্তিকে চিকিৎসার সময় যাবতীয় সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে, যাতে কোনওভাবেই তা ছড়িয়ে না পড়ে। কোনও সন্দেহভাজনের মধ্যে এই ভাইরাসের উপসর্গ দেখা গেলে, রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর বিষয়টি ‘মনিটর’ করবে এবং তাঁর দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে NIV পুনেতে। কোনও আক্রান্ত কোভিড পজিটিভ হলে তিনি গত ২১ দিনে কার কার সংস্পর্শে এসেছিলেন, সেই বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে।

সম্প্রতি বেশ কিছু দেশে এই ভাইরাস দেখা গিয়েছে। স্পেন, পর্তুগাল, কানাডা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও এই মাঙ্কি পক্সের দেখা মিলেছে। কিছুদিন আগে কেন্দ্রের স্বাস্থ্য মন্ত্রক কর্মকর্তাদের গত ২১ দিনে মাঙ্কি পক্স আক্রান্ত দেশগুলিতে ভ্রমণের ইতিহাস সহ সন্দেহভাজন আন্তর্জাতিক যাত্রীদের জন্য কঠোর থার্মাল স্ক্রিনিং করার জন্য বলেছে। এমনকি স্বাস্থ্য মন্ত্রক ন্যাশনাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এবং ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চকে পরিস্থিতির উপর নিবিড় নজর রাখতে এবং যে কোনও পজিটিভ কেস দ্রুত শনাক্ত করার জন্য নজরদারি জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছে। ভারতের মত জনবহুল দেশে নাগরিক অসচেতনতার কারণে এই ভাইরাস একবার ছড়িয়ে পড়লে তা মারাত্মক আকার নিতে পারে।

বিশ্বের একাধিক দেশে যেহেতু মাঙ্কি পক্স ছড়িয়ে পড়েছে, সেকারণে আতঙ্কে রয়েছে ভারত। ভারতেও এই মাঙ্কি পক্স ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে রাজ্য এবং কেন্দ্র উভয় সরকার।

Related Articles

Back to top button