টাইমলাইনবিনোদন

স‍্যানিটারি প‍্যাডের মধ‍্যে মাদক লুকিয়ে ধোঁকা খাইয়েছিলেন NCB কে, ভাইরাল সেই মাদক উদ্ধারের ভিডিও

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সপ্তাহ খানেক আগে মুম্বই থেকে গোয়াগামী বিলাসবহুল ক্রুজের মাদক পার্টি থেকে হাতেনাতে ধরা হয়েছিল শাহরুখ খান পুত্র আরিয়ান খানকে। তাঁর সঙ্গী ছিলেন বন্ধু আরবাজ শেঠ মার্চেন্ট এবং মডেল মুনমুন ধামেচা (munmun dhamecha)। এর আগে তেমন পরিচিত নাম না হলেও NCB র হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর রাতারাতি খবরের শিরোনামে চলে আসেন মুনমুন। তাঁর মাদক লোকানোর কৌশল দেখে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন খোদ NCB গোয়েন্দারা।

অভিযোগ অনুযায়ী, স‍্যানিটারি প‍্যাডের মধ‍্যে মাদক লুকিয়ে পার্টিতে গিয়েছিলেন মুনমুন। ক্রুজে মডেলের নামে বুক করা ঘরে তাঁর জিনিসপত্রের মধ‍্যে থেকে স‍্যানিটারি প‍্যাডের ভেতর থেকে মাদক উদ্ধার করেন NCB গোয়েন্দারা। সেই রেইডের ভিডিও এখন ভাইরাল সোশ‍্যাল মিডিয়ায়।


ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, NCB র  এক মহিলা আধিকারিক মুনমুনের লাগেজের মধ‍্যে থেকে স‍্যানিটারি প‍্যাড বের করে তার ভেতর থেকে নিষিদ্ধ মাদক MDMA পিল উদ্ধার করছেন। ৫ গ্রাম মাদক উদ্ধার হয় মুনমুনের কাছ থেকে। ভিডিওটি ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে নেটমাধ‍্যমে।

অপরদিকে মুনমুনের দাদার দাবি, ভিডিওটি ভুয়ো। তাঁর বক্তব‍্য, “সমস্ত অভিযোগ মিথ‍্যে। মুনমুনের কাছ থেকে কোনো মাদকই উদ্ধার হয়নি। মুনমুন যেখানে দাঁড়িয়েছিল সেই ঘরের মেঝে থেকে মাদক উদ্ধার করেছে NCB। যখন মুনমুনকে আটক করা হয় তখনো সে মাদকের নেশায় ছিল না।”

পেশায় মডেল হলেও রূপে, লাস‍্যে বলিউড অভিনেত্রীদেরও হারা মানানোর ক্ষমতা আছে মুনমুনের। বয়সে তিনি আরিয়ানের থেকে অনেকটাই বড়। ৩৯ বছর বয়সী মুনমুনের বাড়ি আসলে মধ‍্যপ্রদেশে। গত বছরেই নিজের মাকে হারিয়েছেন তিনি। বাবা অনেকদিন আগে থেকেই আলাদা থাকেন। দিল্লিতে নিজের সঙ্গেই থাকেন মুনমুন।


কর্মসূত্রেই বলিউডের বহু তারকার সঙ্গে চেনা পরিচয় রয়েছে মুনমুনের। কিন্তু সেদিনের ওই বিলাসবহুল ক্রুজ পার্টিতে কীভাবে পৌঁছালেন তিনি? মুনমুনের আইনজীবী আলি আসিব খান সম্প্রতি মুখ খুলেছেন এই বিষয়ে। তাঁর দাবি, পারিশ্রমিকের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মুনমুনকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ওই পার্টিতে। একজন মডেল থাকলে পার্টিটা আরো আকর্ষণীয় হবে সে কারণেই ডাকা হয়েছিল তাঁকে। বলরাম নামে একজন মুনমুনের টিকিট কেটে তাঁর ঘরও বুক করে রেখেছিলেন।

আইনজীবী আরো জানান, পার্টিতে যাওয়ার বিষয়টা নিজের দাদার থেকে লুকোননি মুনমুন। এমনকি তিনি নাকি আইনজীবীকে জানিয়েছেন, ক্রুজের প্রবেশের বাইরে মাদক নিষিদ্ধ বলেও লেখা ছিল। তল্লাশিও হয়েছিল তাঁর। কিন্তু NCB যখন ক্রুজ পার্টিতে হানা দেয় তখনি মুনমুনের কাছে পাওয়া যায় মাদক।

Related Articles

Back to top button